দ্রুত অগ্নিনির্বাপণ পদ্ধতি আবিষ্কার করলেন কচুয়ার আব্দুল আজিজ

কোথাও অগ্নিকান্ডের ঘটনা থাকলে দ্রুত আগুন নির্বাপণের পদ্ধতি আবিষ্কার করেছেন চাঁদপুরের কচুয়ার আব্দুল আজিজ। দেশের বিভিন্নস্থানে অগ্নিকান্ডের কারণে বস্তি, শিল্প কারখানা, হাসপাতাল, টাওয়ার, বাড়ীঘর, বনানী নিমতলী, নারায়নগঞ্জে জুসের কারখানায় আগুনে পুড়ে মরছে হাজারো মানুষ, খালি হচ্ছে হাজারো মায়ের বুক। তাই তিনি দ্রুত আগুন নির্বাপণের পদ্ধতি আবিষ্কার করেন। তিনি উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের নাওলা গ্রামের অধিবাসী।

আব্দুল আজিজ বলেন, ‘বিভিন্ন স্থানে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে অনেক মানুষ মারা ঘটনায় আমরা কি কিছু করতে পেরেছি? তার কারণ আধুনিক ভাবে দ্রুত আগুন নেভানোর মতো কোনো পদ্ধতি নেই। তাই আমি সহজ পদ্ধতি প্রায় দু’বছর থেকে মেধা এবং শ্রম দিয়ে আবিষ্কার করেছি। যার সাহায্যে আগুন অতিদ্রুত ও অল্প খরচে, অল্প সময়ে নিভিয়ে ফেলা যায়।

শিল্প কারখানায় বা যে কোনো ভবনে পানির ট্যাঙ্ক থেকে আলাদা পাইপ নিয়ে প্রতি কক্ষে বা বিশিষ্ট বিশিষ্ট তলায় সংযোগ থাকলে অগ্নিকান্ডের সাথে সাথে সুইচ চাপের মাধ্যমে দিয়ে পানি দিয়ে আগুন নির্বাপণ করা সম্ভব। তবে এতে বিদ্যুতের কোনো সংযোগ লাগবে না। শুধু ট্যাঙ্ক ভর্তি পানি থাকলেই চলবে। যাহা আমি পরিক্ষিত করে দেখেছি। যে, কোনো স্যানেটারি মিস্ত্রি একবার দেখলেই বা আমার কাছ থেকে শিখে নিলে সংযোগ লাগানো খুবই সহজ।

তিনি বলেন, আমি বর্তমানে অসুস্থ্য রয়েছি। এই আবিষ্কারে আমার কোনো স্বার্থ নেই। দেশের মানুষ বাস্তবে প্রয়োগ করলেই উপকৃত হলেই আমি গর্বিত । দ্রুত আগুন নির্বাপনের এই পদ্ধতি আবিষ্কার করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন আব্দুল আজিজ।

কচুয়া প্রতিনিধি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *