ফরিদগঞ্জে অনাথ দাস হত্যাকা-ের প্রধান আসামী আটক

ফরিদগঞ্জে অনাথ দাস হত্যকান্ডের ঘটনার প্রধান আসামী সুবল দাস (৬০)কে আটক করেছে পিবিআই। ২৪ আগস্ট মঙ্গলবার ঢাকার কামরাঙ্গীচর এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। পর ২৫ আগস্ট বুধবার তাকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। আটক সুবল দাস আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক আবু বকর সিদ্দিক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পিবিআই সূত্র জানায়, অনাথ দাস গত ১৯ জুলাই সোমবার কড়ৈতলীরপাশ্ববর্তী শাহী বাজারে মাছ বিক্রি করে কড়ৈতলী বাজারের একটি দোকানে এসে চা খাচ্ছিলেন। এসময় তার কাছে একটি ফোন আসলে তিনি সঙ্গীদের কাজ আছে বলে চলে যান। এরপর থেকে তার আর খোঁজ মিলেনি। নিখোঁজের সাতদিন পর তার অর্ধগলিত দেহ উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় নিহতের ছেলে সুভাষ দাস ফরিদগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করে। এই লোমহর্ষক ঘটনার রহস্য উদঘাটনে একই সাথে ছায়াতদন্তে নামে পিবিআই।

পিবিআই আরও জানায়, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে অর্থের বিনিময়ে তাকে হত্যা করে লাশ খালের পানিতে ফেলা দেয়া হয়। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে আটক পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়েনের সেকান্দর গাইন ওরপে শেখার ছোট ছেলে সোহাগকে পুলিশ আটকের পর সে হত্যার কথা স্বীকার করে এবং আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়। সোহাগের কাছ থেকে অনাথদাসের মুঠো ফোনটি উদ্ধার করে। এই হত্যাকান্ডের সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধের মুল হোতা সুবলদাসসহ ৪জন জড়িত বলে জানা গেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আবু বকর ছিদ্দিক জানান, সোহাগ স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দেয়ার পর আমরা মামলার প্রধান অভিযুক্ত সুবল দাসসহ অন্যদের আটকে প্রযুক্তিসহ নানা ভাবে তৎপরতা শুরু করি। ২৪ আগস্ট মঙ্গলবার রাতে ঢাকার কামরাঙ্গীচর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাকে আটক করতে সমর্থ হই।

উল্লেখ্য, পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়েনের খুরুমখালী গ্রামের জেলে অনাথ দাস ১৮ বছর পূর্বে নিজের চাচাতো ভাই সুবল দাসের কাছ থেকে ৩শতক জমি কিনেছেন। সেই ক্রয়কৃত জমি তিনি শেষ পর্যন্ত বুঝে পাননি। কিন্তু জমি দখল স্বত্ত বুঝে পেতে বছরের পর পর সালিশ বৈঠকসহ সকল কিছুই করেছেন। ত্রিশ হাজার টাকা জমির জন্য খরচ করেছেন লক্ষ টাকা। শিকার হয়েছের মারধরের।

স্টাফ রিপোর্টার, ২৬ আগস্ট ২০২১;

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *