মতলব দক্ষিণে মাদ্রাসাছাত্রী নির্যাতনে যুবক আটক

মতলব দক্ষিণ উপজেলার নারায়ণপুর এলাকায় এক মাদ্রসাছাত্রীকে (১৪) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করেছে মো. মিজান (রাসেল) নামের এক যুবক। মো. মিজানের বাড়ি জামালপুরের বকশিগঞ্জ উপজেলার নিলক্ষ্মীয়া গ্রামে। সে ওই গ্রামের ফরহাদ হোসেনের ছেলে।

মিজান হাজীগঞ্জ উপজেলার পালাখাল এলাকায় একটি গ্যারেজে শ্রমিকের কাজ করে। এ ঘটনায় শনিবার ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মতলব দক্ষিণ থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ শনিবার দুপুরে নারায়ণপুর এলাকা থেকে মিজান (রাসেল) কে আটক করে। ধর্ষণের শিকার ছাত্রীটি মতলব দক্ষিণ উপজেলার বাসিন্দা। সে স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় দশম শ্রেণিতে পড়ে।

পুলিশ ও ছাত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ওই ছাত্রীর ভাবীর মুঠোফোনের মাধ্যমে মিজানের সাথে পরিচয় হয়। একপর্যায়ে তাঁদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ও ঘনিষ্ঠতা তৈরি হয়। গত ৯ সেপ্টেম্বর ছাত্রীটি তার মাদ্রাসায় যায়। মিজান খবর দিয়ে ছাত্রীটিকে মাদ্রাসার ফটকের সামনে নিয়ে আসেন। পরে নানা ভাবে ফুঁসলিয়ে সেখান থেকে অপহরণ করে হাজীগঞ্জের বালাখাল এলাকায় তার (মিজান) বাসায় নিয়ে যান। এরপর বিয়ের আশ^াস দিয়ে ছাত্রীটিকে সেখানে একাধিকবার ধর্ষণ করেন।

থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া বলেন, এ ঘটনায় ছাত্রীর মা বাদী হয়ে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। পরে পুলিশ নারায়ণপুর এলাকা থেকে মিজান রাসেলকে গ্রেপ্তার করে । তিনি আরো জানান ছাত্রীটিকে শনিবার দুপুরে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে। সেখানে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা হবে। আসামিকে রবিবার চাঁদপুর আদালতে পাঠানো হবে।

মতলব প্রতিনিধি

Leave a Reply

Your email address will not be published.