ফারইস্টের অর্থ আত্মসাৎ মামলায় নজরুল রিমান্ডে, সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা লোপাট

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় দায়েকৃত একটি মামলায় গ্রেফতার হওয়া কোম্পানিটির সাবেক ও প্রাইম ইন্স্যুরেন্সের বর্তমান চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলামকে দু’দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

এছাড়াও বীমা কোম্পানিটির সাবেক পরিচালক এম এ খালেক এবং তার ছেলে রুবায়াত খালেককে জেল গেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
বিজ্ঞাপন

আজ মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট মাহবুব আহমেদ শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

বীমা গ্রাহকদের জমাকৃত ৮শ’ কোটি টাকার বেশি আত্মসাতের অভিযোগে সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতে শাহবাগ থানায় মামলা নং ১৫(৯)২২ দায়ের করা হয়। ওই মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে আজ আদালতে হাজির করে পুলিশ।

মামলার সুষ্ঠুতদন্তের জন্য তাদের ১৫ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা।

অপর দিকে আসামি পক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন।

তবে উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন। একই সঙ্গে নজরুল ইসলামের দুই দিনের রিমান্ড ও এম এ খালেক এবং তার ছেলে রুবায়াত খালেকের দুই দিনের জেল গেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দেন।

বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন শাহবাগ থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক নিজাম উদ্দিন ফকির।

এর আগে চলতি বছরের ৮ মার্চ ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাবেক চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম ও সাবেক পরিচালক এম এ খালেকসহ কোম্পানিটির ৯ পরিচালক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ।

প্রাইম এশিয়া ফাউন্ডেশন এবং পিএফআই প্রোপার্টিজ লিমিটেড নামক দু’টি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ফারইস্ট ইসলামী লাইফের ১৫৮তম পর্ষদ সভার ভুয়া সার-সংক্ষেপ তৈরি করে সেটির বরাত দিয়ে কোম্পানিটির ৭০ কোটি ৬৯ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে এই মামলা দায়ের করে দুদক।

উল্লেখ্য, ফারইস্ট ইসলামী লাইফের ২০১৫ থেকে ২০১৮ সালের আর্থিক প্রতিবেদনে দেয়া আয় ব্যয়ের তথ্য পর্যালোচনা করে ২০২০ সালের ৭ সেপ্টেম্বর ‘বীমা দাবি পাচ্ছে না ফারইস্ট ইসলামী লাইফের গ্রাহকরা’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশ করে ইন্স্যুরেন্স নিউজ বিডি।

একই বছরের ২৪ জুন ‘সাড়ে ১৪ কোটি টাকার জমিতে বালু ফেলতেই খরচ ১৪২ কোটি টাকা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে এই অনলাইন পোর্টাল।

এসব সংবাদ আমলে নিয়ে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে বিশেষ নিরীক্ষক নিয়োগ ও দুর্নীতির তদন্ত শুরু করে পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি), সরকারের আর্থিক গোয়েন্দা সংস্থা বাংলাদেশ ফাইনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) এবং বীমা খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) ।

এরই ধারাবাহিকতায় ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ বীমা কোম্পানিটিতে নতুন পরিচালনা পর্ষদ গঠন করে পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.