ফরিদগঞ্জে গৃহবধুকে আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার অভিযোগ

ফরিদগঞ্জে তাসলিমা আক্তার (২৬) নামে এক গৃহবধুকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে বিষপানে আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এব্যাপারে নিহত তাসলিমার পিতা রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

এর আগে ওই গৃহবধু শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) কীটনাশক খেয়ে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানেই সে রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) ভোরে মারা যায়। ঘটনাটি ফরিদগঞ্জ উপজেলার বালিথুবা পুর্ব ইউনিয়নের উত্তর রাজাপুর গ্রামে ঘটে।

তাসলিমা আক্তারের ভাই হাবিবুর রহমান ও রাসেল জানান, তার বোনের সাথে চাঁদপুর পৌর এলাকার বিষ্ণুদি গ্রামের মোবারক হোসেনের সাথে ৩ বছর পূর্বে বিয়ে হয়। তাদের ঘরে দেড় বছরের একটি ছেলে রয়েছে। মোবারক হোসেন ফরিদগঞ্জ উপজেলার চান্দ্রা বাজারের ঢাকা হোটেলে কাজ করার কারণে তারা বাজারের পাশেই ভাড়া ঘরে থাকতো। কিন্তু তাসলিমাকে প্রায়শই তার স্বামী ও শশুড় শারিরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো। এজন্য সে বাপের বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয়। কয়েকদিন পূর্বে তাসলিমা বাজারে তার স্বামীর কাছে গেলে তাকে মারধর করে। সর্বশেষ শুক্রবার(১০ সেপ্টেম্বর) তাকে মুঠোফোনে অশ্লীল কথাবার্তা বলে বিষ খেয়ে মরে যেতে বলেন।

পরে অভিমান করে তাসলিমা আক্তার শনিবার কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। দ্রুত আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) মৃত্যু হয়। পরে তার পিতা আবুল বাসার বাদী হয়ে স্বামী ও শশুড়ের বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে লিখিত অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শহিদ হোসেন জানান, চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে পোস্টমর্টেমের জন্য প্রেরণ করেছে। অভিযোগটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি

Leave a Reply

Your email address will not be published.