আমাদের লক্ষ্য একটাই দেশ ও মানুষের সেবা করা : শিক্ষামন্ত্রী

চাঁদপুর সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান-মেম্বারগণের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৯ ডিসেম্বর বুধবার পৃৃথকভাবে চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে চেয়ারম্যান এবং সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মেম্বারদের শপথ অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টায় নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যানদের শপথ বাক্য পাঠ করান জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। এরপর বেলা সাড়ে ১১টায় মেম্বারদের শপথ বাক্য পাঠ করান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ। পৃথক দু’টি শপথ গ্রহন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, চাঁদপুর-হাইমচর ৩ আসনের সাংসদ ও শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি। শপথ গ্রহণ শেষে শিক্ষামন্ত্রী নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান-মেম্বারদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, পৌর মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান।সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ এর সঞ্চালনায় নব নির্বাচিত চেয়ারম্যানদের মধ্যে অনুভুতি ব্যক্তি করেন বাগাদী ইউপি চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন গাজী বিল্লাল।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী ডাক্তার দীপু মনি এমপি বলেন, আমরা যারা জনপ্রতিনিধি তাদের উদ্দেশ্য এবং লক্ষ্য একটাই। আর সেটি হল দেশ এবং মানুষের সেবা করা, সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়া।

আজকে যারা নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন তাদের সকলকে শপথের প্রতিটি বাক্য মেনে চলার চলতে হবে। জনপ্রতিনিধিরা হিসেবে আমরা সব সময় কিছুটা চাপেরর মধ্যে থাকি। তার মানে এই নয় যে আমরা চাপ নেয়াকে অপছন্দ করি। দায়িত্ব পালনের চাপ নিতে হবে বলেই আমরা বারবার জনপ্রতিনিধি হই।

শিক্ষামন্ত্রী তিনি বলেন, একটি রাষ্ট্রের যতগুলো কাজ তার প্রতিটি কাজই ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে রয়েছে। আপনারা নিজ-নিজ দায়িত্বটুকু সঠিকভাবে পালন করবেন। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং মেম্বাররা সমন্বিতভাবে কাজ করবেন। নারী সদস্যদের কাজের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দিবেন। কারণ একজন পুরুষ সদস্য একটি ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত হয়, কিন্তু একজন নারী সদস্য তিনটি ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত হতে হয়।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্বে একটি সুন্দর বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় আমরা কাজ করব। আমাদের এলাকাকে আমরা সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক ইভটিজিং, ক্ষুধা এবং দারিদ্র্যমুক্ত করব। আমাদের এলাকাকে আমরা একটি আদর্শ এলাকা হিসেবে গড়ে তুলবো।

এখানে নির্বাচিত জনপ্রতিনিদের বেশিরভাগ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের। তাই আমি সকলকে অনুরোধ করব ব্যক্তিগত চাওয়া পাওয়াকে দূরে রেখে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা বাস্তবায়ন করব। নেত্রী জন্য আমাদের জীবন দিতে হবে না, নেত্রী যে নির্দেশনা আমাদেরকে দিয়েছেন সেট বাস্তবায়ন করতে হবে।

জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ বলেন, শপথের কথাগুলো শপথের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখলেই হবে না। শপথের প্রতিটি বাক্য আপনাদের কর্ম জীবনে বাস্তবায়ন করতে হবে। আপনারা যদি সকল ক্ষেত্রে সেবার মানসিকতা নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে পারেন, তা হলে দেশ উন্নত হবে, এগিয়ে যাবে। সরকারের যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত এবং উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় ইউনিয়ন পরিষদ সেবার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিনত হয়েছে।

তিনি আরোও বলেন, নারী সদস্যদের সকল উন্নয়ন কাজে সম্পৃক্ত করতে হবে। কারন তারও পুরুষের মতো জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে এসেছেন। আপনার এলাকা যদি ভালো থাকে তাহলে আমারা ভালো থাকবো এবং আমাদের এলাকায় উন্নয়ন হবে। আপনারা আমাকে যে কোন দরকারে বলবেন। আমি আপনাদের সহযোগীতা করতে বদ্ধপরিকর।

চাঁদপুর সদর উপজেলার নব নির্বাচিত ইউপি চেয়ানম্যানরা হলেনঃ বিষ্ণপুর ইউনিয়নের নাছির উদ্দিন খান শামিম, আশিকাটি ইউনিয়নের বিল্লাল মাষ্টার, শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের মাসুদুর রহমান নান্টু, মৈশাদী ইউনিয়নের নুরুল ইসলাম পাটওয়ারী, রামপুর ইউনিয়নের আল মামুন পাটওয়ারী, তরপুরচন্ডী ইউনিয়নের ইমাম হাসান রাসেল গাজী, বাগাদী ইউনিয়নের বেলায়েত হোসেন গাজী বিল্লাল, বালিয়া ইউনিয়নের রফিক উল্ল্যাহ মাষ্টার, চান্দ্রা ইউনিয়নের খান জাহান আলী কালু।

অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলওয়াত করেন জেলা প্রশাসক কার্যালয় মসজিদের ইমাম মেহেদী হাসান ও গীতা পাঠ করেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের উচ্চমান সহকারী বিমল চন্দ্র দে।

‘আমরা চাই নতুন প্রজন্ম চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সফল অংশীদার হবে। এ ক্ষেত্রে অবশ্যই প্রযুক্তির সহযোগীতা লাগবে। কিন্তু এ ক্ষেত্রে শিক্ষক, অভিভাবকের নজরদারির ব্যাপার আছে। আমরা যেমন তাদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে নজরদারি করি, তেমনি করে তারা যখন প্রযুক্তি ব্যবহার করছে সেখানেও নজাদারির রাখতে।আমাদের দায়িত্ব আমাদের পালন করতে হবে। গতকাল ২৯ ডিসেম্বর বুধবার দুপুরে চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সদর উপজেলার নবনির্বাচিত নয়টি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আশিক বিন রহিম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *