কচুয়ায় পানিবদ্ধতায় ৮ গ্রামের মানুষের ভোগান্তি

কচুয়া উপজেলার সিংআড্ডা-আইনপুর সড়কে পানিবদ্ধতায় প্রায় ৮ গ্রামের মানুষ ভোগান্তিতে পড়েছেন। প্রতিনিয়ত এই সড়ক দিয়ে মাদ্রাসা, স্কুল কলেজ শিক্ষার্থী ও মসজিদের মুসল্লিসহ প্রায় ৮ গ্রামের মানুষের যাতায়াত করে।

দু’দিকে বাড়ি ভরাট থাকায়, রাস্তায় একটু বৃষ্টি হলেই হাটু সমান পানি জমে পানিবদ্ধতা হয়। ফলে সাধারন মানুষ ও ওই গ্রামের মুসিল্লরা চলাচল করতে পারছেন না। হাটু সমান পানি থাকার কারনে রাস্তা না দেখায় দুর্ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত। অনেক সময়ে এই সড়ক দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল করলেও বর্তমানে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

অটোচালক ইকবাল হোসেন, আলমগীর, এমরান হোসেনসহ একাধিক চালকরা জানান, সিংআড্ডা-আইনপুর সড়কে প্রতিদিন হাজারো যানবাহন চলাচল করে। কিন্তু বৃষ্টির পানিতে রাস্তায় হাটু সমান পানি থাকায় পানিবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। যার কারনে রাস্তা দেখা যাচ্ছে না। কয়েক দফায় এ সড়কে দূর্ঘটনার শিকার হয়েছেন তারা।

স্কুল শিক্ষক আব্দুল বারেক, স্থানীয় নবীর হোসেন, সাইদুর রহমান, মুহাম্মদ হোসাইন পাঠানসহ একাধিক লোকজন জানান, একটু বৃষ্টি হলেই দু’পাশে পানি জমে রাস্তা তলিয়ে যায়। দু’পাশে বাড়ি ভরাট করার কারনে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় পানিবদ্ধতায় সৃষ্টি হচ্ছে। কেউ তা নিরসনে এগিয়ে আসছে না। তাছাড়া এই সড়কের পাশে সিংআড্ডা বালিকা মাদরাসা, জামে মসজিদ, প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এ সড়কে প্রতিদিন হাজরো মানুষ যাতায়াত করে থাকে। কিন্তু রাস্তায় পানি থাকায় যান চলাচল, পথচারী চলাচল করতে হিমসিম খাচ্ছে। পানিবদ্ধতা নিরসনে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।
ইউপি চেয়ারম্যান কাজী জহিরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর বলেন, সিংআড্ডা-আইনপুর সড়কের পানিবদ্ধতা পরিদর্শন করেছি। অচিরেই তা নিরসনে উদ্যোগ নেয়া হবে।

কচুয়া প্রতিনিধি ,১০ আগস্ট, ২০২১;

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *