কচুয়ায় ভাংচুর মামলায় ২২ নেতাকর্মীর জামিন

কচুয়া প্রতিনিধি

কচুয়ায় গত সোমবার উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে কচুয়া বিশ্বরোড এলাকায় ভাংচুর, ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া,হামলা,সংঘর্ষ ও ভাইস চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে হামলা,ভাংচুরের অভিযোগে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের ২২ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক সালাউদ্দিন সরকার বাদী হয়ে কচুয়া থানায় এ মামলাটি দায়ের করেন। যার নং-০২, তারিখ: ০২.০৮.২০২২ইং।

মামলায় পৌর যুবলীগ নেতা গাজী ফারুক,উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র যুগ্ন আহ্বায়ক সোহাগ উদ্দিনসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ২২জনকে এজাহার নামীয় ও অজ্ঞাত ১০-১২জন বিবাদী করা হয়। এ ঘটনায় গতকাল বুধবার চাঁদপুরের কচুয়া আমলী আদালতে বিবাদীগন স্বেচ্ছায় হাজির হয়ে

জামিন প্রার্থনা করলে বিজ্ঞ বিচারক নাজমুল হাসান চৌধুরী তাদের জামিন মঞ্জুর করেন।

 

বিবাদীদের পক্ষের প্রধান আইনজীবী, অ্যাড. হেলাল উদ্দিন,জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক অ্যাড. জহিরুল ইসলাম,স্বাস্থ্য বিষয়ক

সম্পাদক অ্যাড. জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া,সদস্য অ্যাড. বদিউজ্জামান কিরন,জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাড. আহসান হাবীব,সাধারন

সম্পাদক অ্যাড.আব্দুল্লাহ আল মামুন,জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি অ্যাড. জসিম উদ্দিন পাটওয়ারীর সহ ৫০জন আইনজীবী জামিন প্রার্থনা

করেন।

বিবাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাড. হেলাল উদ্দিন বিজ্ঞ আদালত বিবাদীদের জামিন মঞ্জুর করায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বলেন, মামলায় প্রকৃত দোষীদের

বিবাদী করা উচিত ছিল। ভিডিও চিত্রে দেখা যায় যারা ঘটনাস্থলে ছিল না তাদেরকেও বিবাদী করা হয়েছে। এমনকি জননেতা ড. মহীউদ্দীন খান

আলমগীর সহ জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দকে মিছিল নিয়ে স্বাগত জানাতে যাদের অবস্থান ঘটনাস্থল থেকে ৫শ গজেরও বেশি দুরে ছিল তাদেরকেও

বিবাদী করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, বাদী উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক সালাউদ্দিন সরকার প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে তার কমিটির সিনিয়র যুগ্ন

আহ্বায়ক সোহাগ উদ্দিন,যুগ্ন আহ্বায়ক মেহেদী হাসানসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের বেশকিছু গুরুত্বপূর্ন নেতৃবৃন্দ যারা ঘটনার সাথে জড়িত

 

থাকার কোনো আলামত নেই, তাদেরকেও বিবাদী করা হয়েছে। যারা প্রকৃত দোষী তাদের বিচার হোক এটা আমিও চাই। মামলার বাদী পক্ষ তাদের ভুল বুঝতে পারবে বলে আমার বিশ্বাস। উদ্ভত পরিস্থিতিতে সকল পক্ষ ধৈর্য্যরে পরিচয় দিয়ে দলীয় ঐক্য অটুট রাখার লক্ষে কাজ করবেন বলে আমি আশা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *