ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের পাশে দাঁড়ান

পানিতে তলিয়ে গেলো আলু চাষিদের সপ্ন। দুই দিনের টানা বৃষ্টিতে ডুবে গেছে ফসলি জমি। গত এক সপ্তাহের মধ্যে যারা আলুর বীজ রোপণ করেছিলেন তারা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। সদর উপজেলার কয়েকটি এলাকায় আলুর ক্ষেতে গিয়ে দেখা গেছে, রোপণকৃত আলুর সব জমি বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে।

কৃষকরা বৃষ্টিতে ভিজে ডুবে যাওয়া আলুর বীজ তুলছেন। কিন্তু কৃষি বিভাগ বলছে প্রতি বছর এ জেলায় আগাম আলুর চাষ হয়। এবার বৃষ্টির কারণে বেশ কিছু জমির বীজ নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পানি নেমে গেলে এর পরিমাণ বের করা সম্ভব হবে। এমন অবস্থায় বৃষ্টি চলাকালীন ক্ষেত থেকে আলু না তুলে এমনিতে রেখে দেওয়ার পরামর্শ তাদের।

কৃষি বিভাগের মতে আলুগুলো তুলেও কোনো লাভ হবে না। তুলে রেখে দিলেও সেগুলো পচে যাবে। বৃষ্টি কমার পর অবস্থা অনুযায়ী ছত্রাক ও ব্যাকটেরিয়া নাশক ব্যবহার করা যেতে পারে। তাই আমরা আশা করবো কৃষকদের সচেতনতায় সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলো আরও এগিয়ে আসবে।

কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েল

Leave a Reply

Your email address will not be published.