কচুয়ায় গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু

কচুয়ায় মোহছেনা আক্তার (২২) নামের এক গৃহবধু বিষপান করে আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার মেঘদাইর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সে ওই গ্রামের হারুন মোল্লার মেয়ে। তবে হত্যা নাকি আত্মহত্যা তা নিয়ে চলছে নানান গুঞ্জন।
সরেজমিনে জানা যায়, শুক্রবার সকালে স্বামীর বাড়ির পাশ^বর্তী মতলব দক্ষিণ উপজেলার কাশিমপুর থেকে বিষপান করে মেঘদাইর মোল্লা পাড়া বাবার গৃহে এসে অসুস্থ হয়ে পড়ে। অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখায় কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

নিহতের বাবা হারুন মোল্লা, মা শাহজানাজ ও চাচা আব্দুস সোবহান বলেন, প্রায় আড়াই বছর আগে কাশিমপুর গ্রামের আরব আলীর ছেলে কবির হোসেনের সাথে মোহছেনার বিয়ে হয়। সম্প্রতি সময়ে তাদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ঝগড়া বিবাদ হতো। শুক্রবার সকালে ফোন দিলে মেয়ের জামাতা রিসিভ করে বলেন আপনার মেয়ে আপনাদের বাড়ি চলে গেছে।

এ কথা শুনে আমরা দ্রুত ওই বাড়িতে যাই। সেখানে গেলে মেয়ের জামাতা বলে মোহছেনা নাকি তার স্বর্ণালংকার ও টাকা পয়সা নিয়ে চলে আসছে। এবং আমাদের বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। এদিকে বাড়ি এসে দেখি মেয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক তাই তাকে হাসপাতালে নিলে সে মারা যায়।

জীবিত থাকা অবস্থায় মেয়েকে জিজ্ঞেস করলে স্বামীর পক্ষের লোকজন তাকে মারধর করে জোরপূর্বক দুটি ইঁদুরের ঔষধ খায়িয়ে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে বলে দাবী করেন। হত্যার জন্য মেয়ের স্বামীর বাড়ির লোকজনকে দায়ী করেন এবং ন্যায় বিচার চেয়েছেন মোহছেনার বাবা মা।

এ ব্যাপারে কচুয়া থানার অসি (তদন্ত) মো. ছানোয়ার হোসেন বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.