চাঁদপুরে এসএসসিতে পাসের হার ৯৬.৬৯ জিপিএ-৫ হাজার ৪৫০

চাঁদপুরে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ২৮২ স্কুলের ৩৩ হাজার ১২৯ পরীক্ষার্থীর মধ্যে কৃতকার্য হয়েছে ৩২ হাজার ৩২ জন। শতকরা পাসের হার ৯৬.৬৯ শতাংশ। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ হাজার ৪৫০ জন পরীক্ষার্থী।
উপজেলা পর্যায় থেকে প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী, জিপিএ-৫ প্রাপ্তির দিক থেকে ৬৩২ এ প্লাস নিয়ে শীর্ষে রয়েছে চাঁদপুর সদর উপজেলা, ৪৪১ শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পাওয়ায় জেলায় দ্বিতীয় স্থানে কচুয়া উপজেলা এবং ৩১৮ জিপিএ-৫ নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ফরিদগঞ্জ উপজেলা।

উপজেলাওয়ারী প্রাপ্ত ফলাফলের হিসাবে দেখা যায়, চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪৯টি স্কুল থেকে ৫ হাজার ৯৩৬ জন পরীক্ষার্থীতে এসএসসিতে অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয় ৫ হাজার ৮০৯ জন। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬৩২ জন পরীক্ষার্থী।

ফরিদগঞ্জ উপজেলার ৪৭টি স্কুল থেকে ৪ হাজার ৫৮৯ জন পরীক্ষার্থীতে এসএসসিতে অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয় ৪ হাজার ৪১৭ জন। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩১৮ জন পরীক্ষার্থী। কচুয়া উপজেলার ৪০টি স্কুল থেকে ৪ হাজার ৪৫১ জন পরীক্ষার্থীতে এসএসসিতে অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয় ৪ হাজার ৩৯১ জন। পাসের হার ৯৮.৬৫ শতাংশ। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৪১ জন পরীক্ষার্থী।

শাহরাস্তি উপজেলার ৩৩টি স্কুল থেকে ৩ হাজার ৪৬৮ জন পরীক্ষার্থীতে এসএসসিতে অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয় ৩ হাজার ৩৮৭ জন। পাসের হার ৯৭.৬৬ শতাংশ। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৬০ জন পরীক্ষার্থী।

মতলব দক্ষিণ উপজেলার ২৮টি স্কুল থেকে ৩ হাজার ১৫২ জন পরীক্ষার্থীতে এসএসসিতে অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয় ২ হাজার ৯৪৮ জন। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২১৫ জন পরীক্ষার্থী।

মতলব উত্তর উপজেলার ৩৯টি স্কুল থেকে ৬ হাজার ১৩১ জন পরীক্ষার্থীতে এসএসসিতে অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয় ৫ হাজার ৯০১ জন। পাসের হার ৯৬.২৫ শতাংশ। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৮৯ জন পরীক্ষার্থী।

হাজীগঞ্জ উপজেলার ৩৩টি স্কুল থেকে ৪ হাজার ৩১২ জন পরীক্ষার্থীতে এসএসসিতে অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয় ৪ হাজার ১২৯ জন। পাসের হার ৯৫.৭৬ শতাংশ। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৬১ জন পরীক্ষার্থী।

হাইমচর উপজেলার ১৩টি স্কুল থেকে ১ হাজার ৯০ জন পরীক্ষার্থীতে এসএসসিতে অংশ নিয়ে কৃতকার্য হয় ১ হাজার ৫০ জন। পাসের হার ৯৬.৩৩ শতাংশ। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৪ জন পরীক্ষার্থী।

স্টাফ রিপোর্টার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *