চাঁদপুরে দুই বছর পর ঈদগাহে হলো ঈদের জামাত, খুশি ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা

আশিক বিন রহিম ঈদগাঁহ, ঈদের জামাত এবং কোলাকুলি; মুসলিম বিশ্বে এই আয়োজনগুলোই মূলত ঈদের প্রাণ। ঈদের দিন ঈদগাঁহে বড় জামাতে নামাজ আদায়ের মধ্য দিয়ে ধনী-গরীবের মাঝে সম্প্রতি, সৌহার্দ্যের বহিঃপ্রকাশ ঘটে। অথচ করোনার অদৃশ্য চোখ রাঙানিতে গেলো ২ বছর ঈদের প্রচলিত এসব আয়োজন ছিলো একেবারে দেয়ালবন্ধি। ঈদগাঁহের বদলে স্বল্প পরিসরে মসজিদেই আদায় করতে হয়েছিলো ঈদের নামাজ।

অদৃশ্য করোনা ভাইরাসের সাথে সংগ্রাম শেখে অবশেষে স্বস্তি ফিরেছে জনজীবনে। করোনার ধকল কাটিয়ে দুই বছর পর ঈদগাহ মাঠেই অনুষ্ঠিত হয়েছে ঈদের জামাত। সারা দেশের মতোই এর ব্যতিক্রম ছিলো না সম্প্রীতির জেলা চাঁদপুরেও।

এবার কোনও বিধিনিষেধ ছাড়াই চাঁদপুরের সকল ঈদগাহে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে নানা শ্রেণি-পেশার ধনী-গরীব মানুষেররা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে নামাজ আদায় করেছেন। নামাজ শেষে তাদের চিরাচরিত সেই কোলাকুলির দৃশ্য ছিলো চোখে পরার মতো। যা প্রকাশ করেছে মুসলিম জাহানের ভ্রাতৃত্ববোধের।

৩ মে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টায় চাঁদপুরের প্রধান ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় চাদপুর পৌর ঈদগাহ মাঠে। যেখানে কয়েব হাজার মানুষ অংশ ঈদের জামাতে অংশ নেয়। প্রধান এই ঈদ জামাতে চাঁদপুরের জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ ও পৌরসভার কর্মকর্তা, রাজনীতিক, জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। এতে ইমামতি করেন মাওঃ আব্দুল্লাহ মাে. হাসান।

এছাড়া দ্বিতীয় বৃহৎ জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল সাড়ে ৮টায় চাঁদপুরের প্রধান বাণিজ্যিক এলাকা পুরানবাজারের ঐতিহাসিক মধুসূদন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। চাঁদপুর পৌরসভার ব্যবস্থাপনায় আয়োজিত এই ঈদ জামাতেও সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। সেখানে ইমামতি করেন মুফতি ইব্রাহিম খলিল মাদানী। দুই বছর পর ঈদগাহ ময়দানে বিশাল জামায়াতে ঈদের নামাজ আদায় করতে পেরে খুশি ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা।

এছাড়াও এবহাওয়া ভালো থাকায় চাঁদপুর পুলিশ লাইন্স মাঠ, চাঁদপুর সরকারি কলেজ মাঠ, চাদপুর আউটার স্টেডিয়াম, বেগম জামে মসজিদ, চিশতিয়া জামে মসজিদ সংলগ্ন হাসান
আলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, বাবুরহাট স্কুল ও কলেজ মাঠ, পুরাণবাজার এমদাদিয়া মাদ্রাসা মাঠ, জেলা কারাগার জামে মসজিদ, পুরাণবাজার জাফরাবাদ হাফেজিয়া মাদ্রাসা মাঠ, দক্ষিণ গুণরাজদী আহম্মদিয়া ঈদগাহ, পূর্ব শ্রীরামদি ৩নং গলির সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ, টেকনিকেল স্কুল মাঠ, চাঁদপুর বায়তুন নূর জামে মসজিদ ঈদগাহ রামদাসদী, মসজিদে গাের-এ-গরিবা জামে মসজিদে যথা সময়ে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।
নিরাপত্তার জন্য প্রতিটি ঈদগাহে ছিল কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনী।

এদিকে সারা দেশের ন্যায় চাঁদপুরেও যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হচ্ছে। বেলা ১১টায় অঝরে বৃষ্টি ও জড়ো বাতাস হলেও দুপুর গড়ানোর সাথে সাথে তা কমে আসে।

উল্লেখ: করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে গেলো দুই বছর ঈদের নামাজে জনসমাগম রোধের পাশাপাশি কোলাকুলি-করমর্দন না করার নির্দেশনা দিয়েছিল সরকার। ফলে পাশ্ববর্তী মসজিদগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.