চাঁদপুরে পাউবোর জায়গা দখল খাল ভরাট করে বালুর ব্যবসা

চাঁদপুরে পাউবোর জায়গা দখল খাল ভরাট করে বালুর ব্যবসা
চাঁদপুরে পাউবোর জায়গা দখল খাল ভরাট করে বালুর ব্যবসা

স্টাফ রিপোটার-চাঁদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা দখলের মহোৎসবে পরিণত হয়েছে। চাঁদপুর সিআইপি বেরিবাঁধের দুই পাশে পানি উন্নয়ন বোর্ডের শত শত একর জায়গা দখল করে বালুর ব্যাবসা ও বিশাল মার্কেট দোকান নির্মাণ করার পরি কল্পনা চালাচ্ছে ভূমিদস্যু চক্ররা।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা সব ধরনের লিজ দেওয়া বন্ধ থাকলেও ভূমিদস্যু চক্রেরা অফিসের অসাধু কর্মকর্তাদের সাথে যোগসাজশ করে সরকারি জায়গা দখল করে নিচ্ছে এলাকার ভূমিদস্যুরা। চাঁদপুর পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড পূর্ব রঘুনাথপুরে ঢালির ঘাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গায় একটি ডিসি খাল থাকলেও সেই খালটি ভূমিদস্যু চক্ররা ভরাট করে বালুর ব্যবসা শুরু করছেন। যারা ভরাট করে বালুর ব্যাবসা করছেন তারা হলেন মোঃ মিজান পাটওয়ারী, মোঃ মোফাজ্জল হোসেন (মফু ডিলার) মোঃ বাবুল খান, ও মোঃ ইছাহাক মেম্বার সহ কয়েকজন মিলে। খাল ভরাট করে অবৈধ ভাবে বালুর ব্যাবসা করছে।
খাল ভরাট করার কারণে পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা সম্পূর্ণরূপে বন্ধ হওয়ায় এলাকার মানুষ চরম দূর্ভোগে পড়েছে। এছাড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা দখল করে বালুর ব্যবসা করায় রাস্তা ভেঙে গেছে ও পরিবেশ চরমভাবে দূষণ হচ্ছে।
পূর্ব রঘুনাথপুর সিআইপি বেড়িবাঁধের রাস্তার দুই পাশে বালু দিয়ে ভরাট করে পাকা স্থাপনা উঠিয়ে ভূমিদস্যু চক্রের মার্কেট নির্মাণ করবে।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা দিনদিন দখল হওয়ার কারণে জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।এলাকার স্থানীয় মোঃ আলমগীর পাটওয়ারী ও মোঃ সিয়াস উদ্দিন মোঃ সিরাজ ঢালী অভিযোগ করে বলেন। এই সরকারি খাল দখল করে সেখানে বালু ফেলে ব্যবসা শুরু করেছে এলাকার কিছু দখলবাজ চক্র এই খালে আমাদের সম্পতি রয়েছে সরকারি খালটা অবৈধ ভাবে ভরাট করছে উক্ত খালটি উদ্ধারের জন্য আমরা চাঁদপুর জেলা প্রশাসক ও চাঁদপুর পৌর সভার মেয়র মহদ এর বরাবর একটি লিখিত আবেদ ও করছি। আসা রাখি সরকার এই উদ্ধার করবেন। এ দিকে স্থানীয় কাউন্সিলর মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন তবে সরকারি খালটি অবৈধ ভাবে ভরাট করে বালুর ব্যাবসা করছে সত্য। মেয়র আমাকে নির্দেশ দিয়েছে বিষয়টি সড়জমিনে দেখার জন্য। অবৈধ ভাবে ভারাট করছে এই ব্যাপারে পৌরসভার একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে এলাকাবাসী। তবে খালটি উদ্ধার করা হবে।
এদের অবৈধ বালুর ব্যবসার কারণে পানি নিষ্কাশন বন্ধ হয়েছে ও এলাকার পরিবেশ চরমভাবে দূষণ হয়েছে। এছাড়া আশেপাশে কৃষি জমি ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পরিবেশ দূষণ হওয়ার কারণে ও জনস্বার্থ চিন্তা করে চাঁদপুর পৌর মেয়র অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান জুয়েল রাস্তার পাশে বালু উঠানো বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দেন। কিন্তু অবৈধ বালু ব্যবসায়ীরা মেয়রের কথা না শুনে তারা তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন।অচিরেই সংশ্লিষ্ট প্রশাসন উচ্ছেদ অভিযান করে সরকারি জায়গা পুনরুদ্ধার করে এদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন সচেতন মহল

Leave a Reply

Your email address will not be published.