চাঁদপুরে লঞ্চের ভাড়া বৃদ্ধিতে ক্ষুব্ধ যাত্রীরা

চাঁদপুর থেকে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও শরীয়তপুরসহ বিভিন্ন রুটে লঞ্চের ভাড়া বেড়েছে। প্রতি কিলোমিটারে ৬০ পয়সা ভাড়া বাড়ালেও যাত্রীদের কাছ থেকে তার চেয়ে বেশি আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ঢাকা-চাঁদপুর যাত্রীপ্রতি ১৮০ টাকার ভাড়া বেড়ে হয়েছে ২২০ টাকা। এ ছাড়া সিঙ্গেল কেবিনে ১০০ এবং ডাবল কেবিনের ভাড়া বেড়েছে ২০০ টাকা। এতে ক্ষুব্ধ যাত্রীরা।

৮ নভেম্বর সোমবার চাঁদপুর লঞ্চঘাট ঘুরে দেখা গেছে, ঢাকাগামী লঞ্চে উঠার পর টিকিট করতে গিয়ে বাড়তি ভাড়া চাইছে কর্তৃপক্ষ। তখনই যাত্রীদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হচ্ছে লঞ্চের স্টাফদের। আবে জম জম লঞ্চের সুপার ভাইজার বিপ্লব সরকার বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে লঞ্চের খরচ বেড়ে গেছে। সে কারণে ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। ডেকের ভাড়া ১১৫ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ১৫০, নিচের চেয়ার ১৮০ টাকা থেকে বেড়ে ২২০, নন-এসি সিঙ্গেল কেবিন ৫০০ থেকে বেড়ে ৬০০, ডাবল কেবিন এক হাজার থেকে বেড়ে ১২শ’ টাকা, এসি সিঙ্গেল কেবিন ৭০০ এবং ডাবল কেবিন ১৪শ’ টাকা হয়েছে। এ ছাড়া ভিআইপি কেবিনের ভাড়া হয়েছে আড়াই হাজার টাকা।

তিনি জানান, ভাড়া বাড়ানোর কারণে যাত্রীদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হচ্ছে। তারা বাড়তি ভাড়ার বিষয়টি মানতে চাচ্ছে না। আগের চেয়ে যাত্রীও কিছুটা কম। ঢাকাগামী যাত্রী আবুল হোসেন বলেন, ‘আমি দারোয়ানের চাকরি করি। আগে লঞ্চের ডেকে বসে ১০০ টাকা দিয়ে যেতাম। কিন্তু এখন দিতে হচ্ছে ১৫০ টাকা। এভাবে যদি সবকিছুর বাড়ে তাহলে আমরা চলবো কীভাবে? আমাদের কথা কেউ ভাবে না।’।

ইন্সুরেন্স কোম্পানির কর্মকর্তা হাসান আলী বলেন, ‘আগে প্রতি সপ্তাহে বাড়ি আসতাম। লঞ্চে সাধারণ আসনে বসলে ভাড়া লাগতো ১৮০ টাকা। আজ ঢাকায় যাওয়ার জন্য টিকিট কাটলাম ২২০ টাকা দিয়ে। এখন আর প্রতি সপ্তাহে বাড়ি আসতে পারবো না।’ ব্যবসায়ী আমির হোসেন বলেন, ‘সিঙ্গেল কেবিনের ভাড়া ১০০ টাকা বেশি নেওয়া হচ্ছে। সরকার প্রতি কিলোমিটারে ৬০ পয়সা করে লঞ্চ ভাড়া বাড়িয়েছে। ঢাকা-চাঁদপুর রুটের দূরত্ব ৬২ কিলোমিটার হলে সে হিসাবে ভাড়া বাড়ার কথা ৩৭ টাকা।’

চাঁদপুর বন্দর কর্মকর্তা কায়সারুল ইসলাম বলেন, প্রতি কিলোমিটারে লঞ্চের ভাড়া ৬০ পয়সা করে বাড়ানো হয়েছে। ঢাকা থেকে নদীপথে চাঁদপুরের দূরত্ব ৬২ কিলোমিটার। আগে ডেকের নির্ধারিত ভাড়া ছিল ১১৬ টাকা। লঞ্চগুলো সাধারণ সময় ১০০ টাকা আর ঈদের সময় ১২০ টাকা নিতো। এখন ১১৬ টাকার সঙ্গে বর্ধিত ভাড়া নিলে যাত্রীদের কাছে মনে হবে অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে।
তিনি বলেন, প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া আগে ছিল ১৭০ পয়সা। এখন বেড়েছে ৬০ পয়সা। সেই হিসাবে বর্তমানে প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া ২ টাকা ৩০ পয়সা। এই ভাড়ার পরিমাণ ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত প্রযোজ্য হবে।

বিআইডাব্লিটিএ’র এই কর্মকর্তা বলেন, আমরা লঞ্চগুলোতে মনিটরিং করছি। কেউ নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। থানায় বাদীর লিখিত অভিযোগ ও স্থানীয় এলাকাসূত্রে জানা গেছে, কচুয়া উপজেলার বড়দৈল কালাইয়ের বাড়ির অধিবাসী সিএনজি চালক মিজানুর রহমানের মেয়ে হালিমা আক্তারকে পাশ্ববর্তী চান্দিনার মইচাইল গ্রামে বিয়ে দেয়। ঘটনার কয়েক দিন আগে হালিমা আক্তার তার শিশু কন্যা নুসরাতকে নিয়ে বড়দৈল গ্রামে বাপের বাড়িতে বেড়াতে আসে।

স্টাফ করেসপন্ডেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *