চাঁদপুরে সড়কে প্রাণ গেলো ৫ জনের

স্টাফ রিপোর্টার/মোঃ জাহাঙ্গীর আলম চাঁদপুর-কুমিল্লা সড়কের পৃথক স্থানে পৃথক দুর্ঘটনায় ২জন নিহত হয়েছেন। ৫ মে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে হাজীগঞ্জের বাকিলা সংলগ্ন গোগরা এলাকায় বোগদাদ বাস চাপার শিশু ইভা (৩) নিহত হয়েছে। এরপর স্থানীয়রা সেখানে সড়ক অবরোধ করে রাখে। নিহত ইভা হাজীগঞ্জ উপজেলার গোগরা গ্রামে তালতলা বাড়ির সিএনজিচালক মুরাদের মেয়ে।

অন্যদিকে লাকসাম এলাকায় পিকআপের চাপা বিস্ফোরিত হয়ে শাহরাস্তির টামটা এলাকার হেলাল উদ্দিন (৫০) নামের এক ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন।
নিহত হেলাল উদ্দিন (৫০) শাহরাস্তি উপজেলার টামটা গ্রামের মুক্তিযাদ্ধা মরহুম মো. আইউব আলীর ছেলে। আজ ভোর সাড়ে ৫টার দিকে কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে লাকসাম উপজেলার উত্তরদা ইউনিয়নের চন্দনা বাজারের দক্ষিণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।
স্থানীয় এলাকবাসী, প্রত্যক্ষদর্শী এবং লাকসাম থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, পেট্টেবাংলার একটি পিকআপ ( নং- ঢাকা মেট্টো-ঠ ১৩-৫৬০০) নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থেকে চাঁদপুরের শাহরাস্তি যাচ্ছিল। পথিমধ্যে চন্দনা বাজারের কাছাকাছি এলে বিকট শব্দে গাড়ির একটি চাকার বিষ্ফোরণ ঘটে। ওই সময় গাড়িটি ছিটকে সড়কের পাশে খাদে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই একজন মারা যান।
লাকসাম উপজেলার আজগরা ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের মো. আতিকুর রহমান জানান, নিহত ওই ব্যক্তির তার আত্মীয়। তিনি পেট্টোবাংলার নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে চাকুরি করতেন। সেখান থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে এই দুর্ঘটনায় মারা যান।
মতলবে ঈদে ঘুরতে গিয়ে লাশ হয়ে বাড়ি ফিরলো স্কুলছাত্রী ফারিয়া
নতুন পোষাক পরে সেজেগুজে খালাতো বোন, ভাগনী, ভাতিজিকে সাথে নিয়ে ঈদ আনন্দে ঘুরতে এসে অটোবাইক উল্টে গিয়ে লাশ হয়ে বাড়ী ফিরলো ফারিয়া আক্তার (১৫) নামের এক স্কুল ছাত্রী। সে চাঁদপুর সদর উপজেলার মনোহর খাদী গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের মেয়ে এবং স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে ঈদ উল ফিতরের দিন বিকাল সাড়ে পাঁচটায় মতলব পৌরসভার দগরপুর গ্রাম এলাকায় ।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ঈদের দিন বিকালে অটোরিক্সা যোগে নিজ বাড়ী বিষ্ণুপুরের মনোহরখাদী গ্রাম থেকে ফারিয়া আক্তার তার খালাতো বোন ফারজানা, (১৫) ভাতিজি ঝর্না (৯) ও ভাগনী ফাতেমা (১০)কে সাথে নিয়ে অটোবাইকে করে মতলব সেতু এলাকায় ঘুরতে বের হয় ।
মতলব সেতুতে কিছুক্ষণ থাকার পর দগরপুর এলাকায় যাওয়ার পথে অটোবাইকটি উল্টে যায় এতে ফারিয়া আক্তারসহ অটোবাইকে থাকা সবাই কমবেশী আহত হয়।তাদের মধ্যে ফারিয়া আক্তার গুরুতর আহত হওয়ায় প্রথমে মতলব ও পরে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
এ বিষয়ে মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া বলেন দুর্ঘটনার বিষটি আমি শুনেছি তবে তারা কোন অভিযোগ করেনি । অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেব ।
ফরিদগঞ্জে মোটরসাইকেল-পিকআপের সংষর্ষে নিহত ১ : আহত ২
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে পিকআপ ভ্যান ও মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে ৩ জন হতাহত হয়েছে। ৭ মে শনিবার দুপুরে উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের লাড়ুয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মোটরসাইকেল চালক মো. আমিন দেওয়ান (১৮)এর মৃত্যু হয় এবং সাথে থাকা ২ আরোহী আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
স্থানীয়রা জানায়, শনিবার দুপুরে ওই ইউনিয়নের আলমগীর ভূঁইয়ার বাড়ির সামনে পিকআপভ্যান ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষের পর পিকাআপ ভ্যানটি ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।
পরে স্থানীয়রা মোটর সাইকেল চালক ও আরোহীদের উদ্ধার করে নিকটস্থ হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মোটরসাইকেল চালক মো. আমিন দেওয়ানকে মৃত ঘোষনা করেন এবং মোটরসাইকেল আরোহী মো. রাকিবুল ইসলাম ও রাশেদ গুরুতর আহত থাকায় হাসপাতালে ভর্তি দেন। নিহত মোটরসাইকেল চালক মো. আমিন দেওয়ান চরদুঃখিয়া পূর্ব ইউনিয়নের সন্তোষপুর গ্রামের প্রবাসী মো. মিজানুর রহমান দেওয়ানের ছেলে এবং মোটরসাইকেল আরোহী মো. রাকিবুল ইসলাম (২২), পিতাঃ মোক্তার আহম্মদ ও রাশেদ খান (২৫), পিতাঃ শাহাজান খান পাশ্ববর্তী হাইমচর উপজেলার কমলাপুর গ্রামের বাসিন্দা।
এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার তদন্ত (ওসি) প্রদীপ মন্ডল জানান, উক্ত স্থানে অজ্ঞাত পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় মোটরসাইকেলে থাকা তিন জন রাস্থার পাশের্^ ছিটকে পড়ে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে মোটরসাইকেল চালক আমিনকে মৃত ঘোষণা করেন।
তিনি আরো জানান, নিহতের পরিবারের লোকজন ময়না তদন্ত চাড়া লাশ দাফনের জন্য বিজ্ঞ এডিএম বরাবর লিখিত পত্র দিয়েছেন। নিহতের ঘটনায় পরিবারের লোকজন লিখিত অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
হাইমচরে পিকআপ ভ্যান-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে মো. আমিন দেওয়ান (১৮) নামে এক মোটরসাইকেল চালক নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন ২জন মটর সাইকেল আরোহী।
শনিবার (৭ মে) দুপুর ২টায় ফরিদগঞ্জ উপজেলার রামপুর- আলগীবাজার সড়ক পশ্চিম লাড়ুয়া দরবেশ আলি ভূইয়া বাড়ির সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত আমিন দেওয়ান ফরিদগঞ্জ উপজেলার সন্তোষপুর গ্রামের মিজানুর রহমান দেওয়ানের ছেলে। আহতরা হলেন, কমলাপুর গ্রামের মোক্তার আহমেদের ছেলে রাকিবুল হাসান (২২) ও শাহজান খাঁনের ছেলে রাশেদ খাঁন (২৫)।
হাইমচর থানার এসআই শহিদুল্লাহ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রামপুর থেকে আলগীবাজার আসার পথে পশ্চিম লাড়ুয়া এলাকায় পিকাপ ভ্যানের সাথে মটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে স্থানীয় লোকজন ৩ জনকে গুরুতর অবস্থায় হাইমচর স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক ৩জনের মধ্যে আমিন দেওয়ান নামক যুবককে মৃত ঘোষনা করেন। বাকি দুই যুবক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে হাইমচর স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
তিনি আরও জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার পূর্বেই পিকাপ ভ্যানটি পালিয়ে যায় । এছাড়া মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.