চাঁদপুর সদরে ৯ ইউপিতে নৌকা বিজয়

চাঁদপুরে সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন ১১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে সবকটিতে নৌকার প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। তবে রামপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আল মামুন পাটওয়ারী ও তরপুরচন্ডি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ইমাম হাসান রাসেল গাজী আগেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন ৬ জন এবং ৩ জন প্রথমবারের মতো ইউপি চেয়ারম্যান পদে জয়ী হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা নির্বাচন অফিসার তোফায়েল আহমেদ।

বিজয়ী নৌকার প্রার্থীরা হলেন :

১নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান নাছির উদ্দিন খান শামীম, ২নং আশিকাটিতে বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন পাটওয়ারী, ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নে মাসুদুর রহমান নান্টু, ৫নং রামপুর ইউনিয়নে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হন বর্তমান চেয়ারম্যান আল মামুন পাটওয়ারী, ৬নং মৈশাদী ইউনিয়নে মো. নুরুল ইসলাম, ৭নং তরপুরচন্ডী ইউনিয়নে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় বর্তমান চেয়ারম্যান ইমাম হাসান রাসেল গাজী, ৮নং বাগাদী ইউপিতে বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ বেলায়েত হোসেন গাজী বিল্লাল, ৯নং বালিয়া ইউপিতে রফিক উল্যাহ মাস্টার এবং ১২নং চান্দ্রায় বর্তমান চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটওয়ারী।

১নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী (নৌকা) প্রতিকে বর্তমান চেয়ারম্যান নাছির উদ্দিন খান শামীম ১১ হাজার ৬৫২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী (হাতপাখা) প্রতিক অজিউল্লাহ সরকার পেয়েছেন ১৫১১ ভোট এবং স্বতন্ত্র খোরশেদ আলম (আনারস) প্রতীক পেয়েছেন ৭৭৮ ভোট।

২নং আশিকাটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী (নৌকা) প্রতিকে বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন পাটওয়ারী ৬ হাজার ৯৭৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হাতপাখা প্রতীকের চেয়ারম্যারপ্রার্থী মাসুদ গাজী পেয়েছেন ৩ হাজার ৯২২ ভোট এবং নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানো স্বতন্ত্র প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ৭২৫ ভোট।
৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ প্রার্থী (নৌকা) প্রতিকে মাসুদুর রহমান নান্টু ৫ হাজার ৬৬৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী স্বপন মাহমুদ (টেলিফোন) প্রতীকে পেয়েছেন ৪ হাজার ৪১৫ ভোট, (হাতপাখা) প্রতীক মো. শাহ জামাল গাজী ৯৪২ ভোট, স্বতন্ত্র মোঃ রফিকুল ইসলাম ( আনারস) প্রতিকে ২ হাজার ১৩১ ভোট।

৬নং মৈশাদী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে (নৌকা) প্রতীকে মো. নুরুল ইসলাম ৭ হাজার ৫৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী স্বতন্ত্র আবু জাফর মোঃ সালেহ (আনারস) প্রতীকে পেয়েছেন ৪৭০ ভোট এবং (হাতপাখা) প্রতীক আজহারুল ইসলাম পেয়েছেন ৩৫৭ ভোট।

৮নং বাগাদী ইউনিয়নে (নৌকা) প্রতিকের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ বেলায়েত হোসেন গাজী বিল্লাল ৮ হাজার ৯৪৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র (চশমা) প্রতিক মোঃ বরকত উল্ল্যাহ খান পেয়েছেন ৩ হাজার ২৭৯ ভোট, (হাতপাখা) প্রতীক মো. নেয়ামত উল্লাহ পেয়েছেন ১ হাজার ১৭৯ ভোট, (আনারস) প্রতীক মানিক মিয়া ৫৩২ ভোট, জাকের পার্টির মুনসুর বেপারী (গোলাপ ফুল) প্রতিক পেয়েছেন ১৬১ ভোট।

৯নং বালিয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ প্রার্থী (নৌকা) প্রতিক রফিক উল্যাহ মাস্টার ৭ হাজার ৭০৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী (হাতপাখা) প্রতীক মো. নুরুদ্দিন খান ২ হাজার ২০৩ ভোট, স্বতন্ত্র (টেলিফোন) প্রতীক হাফিজুর রহমান ২ হাজার ৩৭৬ ভোট, (আনারস) মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন তফাদার ৩১ ভোট, (মটর সাইকেল) মোঃ কামরুল হাসান খান ৫৩, (চশমা) প্রতীক গাজী মোঃ মাসুদ রায়হান ২ হাজার ২৫৫ ভোট, বর্তমান চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম (টেবিল ফ্যান) ২৬ ভোট পেয়েছেন।

১২নং চান্দ্রা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী (নৌকা) প্রতিকে বর্তমান চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটওয়ারী ৯ হাজার ৮৩৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী (হাতপাখা) প্রতিক মাও. মো. মজিবুর রহমান মিয়াজী ২ হাজার ১৪১ ভোট, স্বতন্ত্র (ঘোড়া) প্রতীক মুকবুল ১৬৩ ভোট, আব্দুর রহমান বেপারী (আনারস) ২ হাজার ৯৫৩ ভোট পেয়েছেন।

দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চাঁদপুরের ৯ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এ নির্বাচনে চাঁদপুরের ৯টি ইউনিয়নে মোট ৩৭৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। যার মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৩১ জন, সাধারণ সদস্য পদে ২৭৫ জন, সংরক্ষিত সদস্য পদে ৭০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

প্রসঙ্গত, নির্বাচনী তফসিল অনুযায়ী দ্বিতীয় ধাপে চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গত সোমবার হানারচর ইউনিয়নের নির্বাচন ৮ সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। ওই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আঃ ছাত্তার রাঢ়ীর রিটের প্রেক্ষিতে এই আদেশ দেন হাইকোর্ট।

স্টাফ করেসপন্ডেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *