চাঁদপুর পৌর ২ ও ৩নং ওয়ার্ড বিএনপি’র বিক্ষোভ সমাবেশ

 

এস আর শাহ আলম

ফ্যাসিষ্ট আওয়ামী সরকার কর্তৃক তেল, গ্যাস ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য-মূল্যের উর্ধ্বগতি এবং ভোলা জেলায় পুলিশের গুলিতে স্বেচ্ছাসেবক ও ছাত্রদল

নেতা হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করেছে পৌর ২ ও ৩ নং ওয়ার্ড বিএনপি।

মঙ্গলবার ৩০ আগষ্ট বিবেলে পুরানবাজার ডিগ্রি কলেজ রোডে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন পৌর বিএনপির সভাপতি আক্তার হোসেন মাঝি।

 

তিনি বক্তব্যে বলেন, দ্রব্যমূল্যের সীমাহীন উদ্ধগতি। জ্বালানী তেলের দাম প্রায় অর্ধশত টাকা বৃদ্ধি করে, ৫ টাকা কমিয়েছে। যা হাস্যকর। তারা জনগনের

ভোটে নির্বাচিত হয় নাই, তারা ভোট চোর সরকার। এ সরকার প্রশাসনের উপর নির্ভর করে টিকে আছে। তাদের ভোটের অধিকার দরকার নেই। তারা

জনগনের ভোটের অধিকার কে হত্যা করেছে।

 

তিনি আরোও বলেন, আমাদের আন্দোলন বিএনপির আন্দোলন নয়। এ আন্দোলন জনগনকে বাঁচানোর আন্দোলন। এমন কোন খাত নেই সরকার

দূর্নীতি করে নাই। এ দূর্নীতিবাজ সরকারকে আর আমরা দেখতে চাই না। এ সরকার যতদিন ক্ষমতায় থাকবে তারা জনগনের অধিকার হরণ করবে। শেখ

ফরিদ আহমেদ মানিকের নেতৃত্বে চাঁদপুরে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

২ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ফরিদ আহমেদ বেপারীর সভাপতিত্বে ও ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এর পরিচালনায়

বক্তব্য রাখেন

পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. হারুনুর রশিদ,

 

পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি শহীদুল ইসলাম মক্কু ছৈয়াল, পৌর যুবদলের আহ্বায়ক শাহজাহান কবির খোকা, জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের যুগ্ম আহ্বায়ক

 

 

ইফতেখার উদ্দিন শিশু, পৌর শ্রমিকদলের সভাপতি ফরিদ আহমেদ মোস্তান, পৌর ছাত্রদলের আহ্বায়ক মামুন খান, চাঁদপুর সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়

কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি সোহেল হোসেন গাজী।

এ সময় পৌর বিএনপি নেতা হুমায়ন কবির হুমা, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল গাজী বাহার, পৌর যুবদলের সদস্য সচিব আবদুর

রাজ্জাক হাওলাদার, ৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি সৈয়দ আহমেদসহ বিএনপি ও অংঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এছারা জেলা মহিলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক ঈশিতা বেগম সহ ওয়ার্ড মহিলা নেতৃবৃন্ধু উপস্থিত ছিলেন।
সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। এসময় সমাবেশে বক্তারা বলেন, স্বৈরাচারী সরকার ভোলা জেলায় আমার ভাইদের গুলি করে হত্যা করেছে। আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। এ সরকারকে আমরা আর একমূহুর্তেও রাখতে চাইনা। তাদের অধিনে কোন নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহন করবে না। দ্রব্যমূল্যেরর দাম বৃদ্ধি শুধু বিএনপির জন্য নয়, সকল দলের ও সাধারণ মানুষের জন্য। জনগনকে সাথে নিয়ে দ্রব্যমূল্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে আনতে আমরা আন্দোলন করে যাব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.