ফরিদগঞ্জে ছিনতাই হওয়া ল্যাপটপ উদ্ধার

ফরিদগঞ্জে প্রাইভেটকার নিয়ে ছিনতাই করা আন্ত:জেলা ডাকাত ও ছিনতাইকারী চক্রের ৫ সদস্যকে আটক করেছ পুলিশ। পরে তাদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক ফরিদগঞ্জে তিনমাস পূর্বে সাংবাদিক নুরুল ইসলাম ফরহাদের ছিনতাই হওয়া ল্যাপটপ উদ্ধার এবং ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত প্রাইভেট কারটি জব্দ করেছে পুলিশ। এঘটনায় পুলিশ প্রধান অভিযুক্ত রবিনসহ ৫জনকে আটক করেছে।

৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে ফরিদগঞ্জ থানায় প্রেস কনফারেন্স-এর মাধ্যমে ঘটনার আদ্যোপ্রান্ত বর্ণনা করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ফরিদগঞ্জ-হাজিগঞ্জ) সার্কেল সোহেল মাহমুদ। এসময় ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও ফরিদগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক(তদন্ত) মো: বাহার মিয়া, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: কামরুজ্জামান, সম্পাদক আ: ছোবহান লিটনসহ ফরিদগঞ্জে কর্মরত সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, চলতি বছরের গত ৩১ মে রাতে ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সহসাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক খোলা কাগজের ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি নুরুল ইসলাম ফরহাদকে বাড়ি ফেরার পথিমধ্যে চাঁদপুর-রায়পুর আঞ্চলিক সড়কের পাশে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার পূর্ব বড়ালী গ্রামের কামিনী চৌকিদারের ব্রীজের উপর অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন ছিনতাইকারী সাদা রংঙের প্রাইভেট কার নিয়ে তার গতিরোধ করে। তাকে মারধর করে এবং ১টি ল্যাপটপ, ১টি মুঠোফোন এবং নগদ অর্থ ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।

ঐ রাতেই নুরুল ইসলাম ফরহাদ ফরিদগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করে। পরে ছিনতাই হওয়া মোবাইল ফোনের সূত্রধরে প্রথমে পার্শ্ববর্তী রামগঞ্জ উপজেলার চাঙ্গির গাও গ্রামের শেফালী বেগম ও নুসরাত জাহান ফারিসা নামে দুই নারীকে আটক করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফরিদগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক(তদন্ত) মো: বাহার মিয়া। তাদেরকে জ্ঞিসাবাদের এক পর্যায়ে তারা পার্শ্ববর্তী বাড়ির হাজী শামসুন নূর পাটোয়ারীর ছেলে মোঃ রফিকুল ইসলাম রবিন (২৭) থেকে মোবাইলটি ক্রয় করতে ডিভাইস চেকিং করার কথা জানায়।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তাৎক্ষণিকভাবে আসামী রবিনকে গ্রেফতারের জন্য অভিযানকালে জানতে পারেন রামগঞ্জ উপজেলা সংঘটিত একটি ডাকাতি মামলায় ইতিমধ্যে রামগঞ্জ থানা পুলিশ রবিন ও তার ৪ জন সহযোগীকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। পরে তিনি আদালতে ওই মামলায় আসামীদের শোন এ্যারেস্ট দেখিয়ে রিমান্ডের আবেদন করেন। আদালত আসামীদের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করলে বৃহস্পতিবার (০২সেপ্টেম্বর) আসামীদের রিমান্ডে এনে ব্যাপক জিজ্ঞসাবাদকালে রবিন ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করে। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার চাঙ্গির গাও এলাকা থেকে তাজল ইসলামের ছেলে ফাহিম (১৯)কে ল্যাপটপসহ আটক করে। একইসাথে ঘটনায় ব্যবহৃত সাদা রং-এর প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্রো-ন-১১-২৩৪৪)টি রায়পুর উপজেলার মধুপুর এলাকা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে।

এব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শহিদ হোসেন জানান, তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে আমরা আন্ত:জেলা ডাকাত ও ছিনকারী চক্রকে আটক করতে সক্ষম হয়েছি। আটক রবীনের বিরুদ্ধে রামগঞ্জ, রায়পুর ফরিদগঞ্জ থানায় ১০টির অধিক মামলা রয়েছে। সে পেশাদার অপরাধী।

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২১;

Leave a Reply

Your email address will not be published.