জাতিকে মেধাশূন্য করতে বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করা হয়েছিলো

স্টাফ রিপোর্টার চাঁদপুরে শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা মঞ্চে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) কামরুল হাসান।
তিনি ক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীনের সন্নিকট জেনেই ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর বেছে বেছে জাতির মেধাবী সন্তান তথা বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করা হয়। জাতিকে মেধাশূন্য করতে বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করা হয়েছিলো। পাক হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসর রাজাকাররা দেশব্যাপী জঘন্য হত্যাকান্ড চালিয়েছিল সেদিন। তাদের প্রেতাত্মারা আজও সক্রিয় দেশ ও জাতির বিরুদ্ধে। এদের বিষয়ে আমাদের সবাইকে সতর্ক ও সচেতন থাকতে হবে।
তিনি আরো বলেন, একটু পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে, তখন সব চেয়ার ভরে যাবে। দেশ স্বাধীন হয়েছিলো বলেই এ বিজয় মেলা, আর বিজয় মেলা আয়োজন হয়েছে বলেই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইমতিয়াজ হোসেনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মো. মিলন মাহমুদ, চাঁদপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা জনাব এম. এ ওয়াদুদ, সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ সাহাদাৎ হোসেন, পুরানবাজার ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদার, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলন।
দৈনিক সুদিপ্ত চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এম আর ইসলাম বাবুর সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোসাম্মৎ রাশেদা আক্তার, চাঁদপুর জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ মো. ইউসুফ গাজী, সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক অজয় কুমার ভৌমিক, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শানজিদা সাহনাজ, চাঁদপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র মোহাম্মদ আলী মাঝি, চাঁদপুর জেলা যুুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, চাঁদপু প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, শরীফ চৌধুরী, চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আব্দুর রশীদ, মুক্তিযোদ্ধা মহসীন পাঠান, মুক্তিযোদ্ধা ইয়াকুব মাস্টারসহ আরো অনেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *