জাল টাকা থেকে সাবধান হওয়া জরুরী

কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েল সামনে ঈদ উল ফিতর। ঈদের কয়েক দিন বাকি আছে। হাটবাজারে ক্রেতা-বিক্রেতার ভিড় বাড়ছে। এর মধ্যে জাল টাকার চক্র সক্রিয় হয়ে উঠবে। কিছু অসাধু জাল নোট কারবারিদের অপতৎপরতার জন্য অসহায় কৃষকদের চোখের জল ছিল একমাত্র সম্বল। জাল নোট কারবারিদের খপ্পরে পড়ে ভিটে মাটিও বিক্রি করে দিয়েছেন।
কেনাবেচার এই ব্যস্ততার মাঝে এক শ্রেণীর অসাধু মানুষ জাল টাকা ছড়িয়ে চলে। ভীড়ের মাঝে সাধারণ মানুষের কিছুটা সচেতনতার অভাব এবং জাল নোট কারবারিদের নিত্য নতুন প্রযুক্তির উদ্ভাবন এই সমস্যা সকলকেই ভাবিয়ে তুলেছে। বড় নোটের ক্ষেত্রে জাল করার ঘটনাগুলো বেশি ঘটে থাকে। এজন্যই বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক নির্ধারিত ৫০০ এবং ১০০০ টাকা মূল্যমানের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি সম্বলিত আসল ব্যাংক নোটের কিছু সহজ বৈশিষ্ট্য, যা খালি চোখে দ্রুত বোঝা যায়, আমাদের জেনে রাখা প্রয়োজন।
ঈদের আগে কয়েকদিনের জন্য বেচাকেনা বাড়তে থাকে । সেই কারণে, এই সময় দোকানগুলোতে ভিড় অনেক বেশী হয়ে থাকে। তাই প্রতিটি মানুষকেই জাল টাকা প্রতিরোধের জন্য সতর্ক থাকা উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.