সারা বিশ্বের সিনেমাকে পেছনে ফেলা সেই ‘জয় ভীম’কে কি ছাড়াতে পেরেছে ‘কেজিএফ’

গত বছর নভেম্বরে ওটিটিতে মুক্তি পায় তামিল সিনেমা ‘জয় ভীম।’ অল্প সময়েই সিনেমাটি সারা বিশ্বের বাঘা নির্মাতাদের সিনেমাকে পেছনে ফেলে টপকে যায়। মুক্তির পরেই সিনেমাটি উঠে আসে চলচ্চিত্রবিষয়ক অনলাইন তথ্যভান্ডার, ইন্টারনেট মুভি ডেটাবেইসের (আইএমডিবি) শীর্ষে। সেই সময় ‘শশাঙ্ক রিডাম্পশন’, ‘গডফাদার’ সিনেমাগুলোকে পেছনে ফেলে তাক লাগিয়ে ছিল ‘জয় ভীম’। এ সিনেমাকে কি ছাড়িয়ে যেতে পেরেছে সম্প্রতি আলোচিত ‘কেজিএফ-২।’

বিশ্বের সিনেমাপ্রেমীদের ভোটে ও রেটিংয়ে আইএমডিবির সেরা সিনেমার তালিকা করা হয়। সেই তালিকায় দীর্ঘদিন ধরেই এক নম্বর অবস্থানে ছিল ‘শশাঙ্ক রিডাম্পশন’। হঠাৎ করেই সেই রেকর্ড ভেঙেছিল ভারতীয় সিনেমা ‘জয় ভীম।’ সেই সময় অবাক হয়েছিল বিশ্ব সিনেমাপ্রেমীরা। পরে অবশ্য সিনেমাটি তার জায়গা ধরে রাখতে পারেনি। তার অন্যতম কারণ ছিল ভারতের বাইরে থেকে সিনেমাটি তেমন ভোট পায়নি। যে কারণে আইএমডিবির সেরা ২৫০ সিনেমার তালিকা থেকেও একসময় ছিটকে পড়ে ‘জয় ভীম’। সিনেমাটির এখন রেটিং ৮.৪। এ দিক থেকে সিনেমাটিকে ছাড়িয়ে গেছে ‘কেজিএফ-২’। সিনেমাটির রেটিং ৮.৫। সেই সময়ের তুলনায় রেটিংয়েও এগিয়ে আছে ‘কেজিএফ–২’।

 সারা-বিশ্বের-সিনেমাকে-পেছনে-ফেলা-সেই-‘জয়-ভীমকে-কি-ছাড়াতে-পেরেছে-‘কেজিএফ

মুক্তির অল্প সময়ের মধ্যেই ‘কেজিএফ-২’ ভারতীয় সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে রেকর্ড গড়ে। প্রতিদিন শতকোটি টাকার বেশি আয় করা সিনেমাটির বাড়তে থাকে দর্শক ভোট ও রেটিং। তবে সিনেমাটি এখন পর্যন্ত আইএমডিবির সেরা ২৫০ সিনেমার তালিকায় জায়গা নিতে পারেনি। সে দিক থেকে ‘জয় ভীম’ এগিয়ে। তবে প্রথম সপ্তাহের তুলনা করলে, দুটি সিনেমাই মুক্তির পর গড় রেটিংয়ে সমান। বর্তমান ‘কেজিএফ’ সিনেমাটির রেটিং ১০-এ ৯.৬। মুক্তির প্রথম সপ্তাহে ‘জয় ভীম’ একই রেটিং পেয়েছিল। অন্যদিকে ‘জয় ভীম’ প্রথম সপ্তাহে ৭০ হাজারের ভোট পেয়েছিল। সেই জায়গায় গত এক সপ্তাহে ‘কেজিএফ-২’ এর ঘরে গিয়েছে ৬৬ হাজার ভোট। প্রথম সপ্তাকে ‘জয় ভীম’ থেকে সিনেমাটি ৪ হাজার ভোট কম পেয়েছে। মুক্তির তৃতীয় দিন থেকেই আইএমডিবির ভারতীয় সিনেমার মধ্যে শীর্ষ স্থান দখল করেছে কন্নড় সুপারস্টার যশ অভিনীত ‘কেজিএফ-২’। সেদিক থেকে পিছিয়ে ছিল তামিল অভিনেতা সুরিয়ার ‘জয় ভীম’। সিনেমাটিকে এ জায়গায় আসতে এক সপ্তাহের বেশি সময় নিতে হয়। বর্তমান আইএমডিবির টপ রেটিং সিনেমার মধ্যে তিন নম্বরে রয়েছে ‘জয় ভীম।’

চলচ্চিত্রবিষয়ক অনলাইন তথ্যভান্ডারের মধ্যে আইএমডিবির কোনো জুড়ি নেই। সিনেমার যেকোনো তথ্যের খোঁজে এই সাইটে সবচেয়ে বেশি ঢুঁ মারেন দুনিয়ার সিনেমাপ্রেমীরা। সাইটটিতে ছবির ভালোমন্দ বিচার করে রেটিং দেওয়ারও ব্যবস্থা আছে। ভোটে এবং রেটিংয়ের হিসাবে এগিয়ে থাকা সিনেমাকেই ধরা হয় বিশ্বের সেরা সিনেমা। ২৫০ সিনেমার এমন একটি তালিকায় ভারতীয় সিনেমা মধ্যে ৮৭ নম্বরে রয়েছে ‘থ্রি ইডিয়ট’, ১২৩ নম্বরে ‘তারে জামিন পার’, ১২৭ নম্বরে ‘দঙ্গল’, সত্যজিৎ রায়ের ‘পথের পাঁচালী’ রয়েছে ২০১ নম্বরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.