তামান্নার স্বপ্নপূরণে সহযোগিতার আশ্বাস : শিক্ষামন্ত্রীর ফোন

সময় ডেস্ক এক পায়ে লিখে জিপিএ-৫ পাওয়া তামান্না আক্তার নূরাকে স্নাতক স্তরে মাইক্রোবায়োলজি বিষয়ে পড়াশুনার পরামর্শ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।
মঙ্গলবার বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে তামান্নার বাবার ফোনে কল দিয়ে অভিনন্দন জানানোর পাশাপাশি এ পরামর্শ দেন তিনি। তামান্নার সঙ্গে দেখা করতে শিগগির যশোরে আসবেন বলেও জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। তামান্নার বাবা রওশন আলী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এর আগে তামান্নার সঙ্গে ফোনে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহানা। তাকে অভিনন্দন জানানোর পাশাপাশি স্বপ্নপূরণে যেকোনো সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই দুই কন্যা।
অজেয় তামান্নাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহেনার ফোনঅজেয় তামান্নাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহেনার ফোন
রওশন আলী জানান, মঙ্গলবার বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আমার ফোনে কল দিয়ে তামান্নাকে খোঁজখবর নেন। একপর্যায়ে তামান্নার সঙ্গে কথা বলার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। তামান্নার সঙ্গে ২৪ মিনিট ৩০ সেকেন্ড কথা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী। এ সময় তিনি তামান্নাকে বলেন, মনোবল হারানো যাবে না। গোটা বাংলাদেশ তোমার সঙ্গে আছে। তুমি এগিয়ে যাও। তোমার সঙ্গে আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও আছেন। তুমি নুরের নুর। আল্লাহু রাব্বুল আল-আমিন তোমাকে নুরের আলোয় আলোকিত করেছে। ভার্সিটিতে মাক্রোবাইলোজি বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করার পরামর্শ দিয়ে বলেছেন, খুব তাড়াতাড়ি আমি তোমার সঙ্গে দেখা করতে যশোরে আসবো। এছাড়া শিক্ষামন্ত্রী তার পরিবারের খোঁজখবর নেন।
এদিকে মঙ্গলবার ঝিকরগাছা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ডা. কাজী নাজিব হাসান তামান্নাকে ফুলের শুভেচ্ছা জানান।
একই দিন যশোর থেকে প্রকাশিত দৈনিক কল্যাণ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে তামান্নাকে সংবর্ধনা প্রদান দেওয়া হয়। পত্রিকাটির ব্যবস্থাপনা সম্পাদক এজাজ উদ্দীন টিপু তামান্না পড়াশুনার দায়িত্ব নিয়েছেন। অনুষ্ঠানে তামান্নাকে পত্রিকাটির পক্ষ থেকে এককালীন শিক্ষাবৃত্তিও দেওয়া হয়েছে।
যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া আলীপুরের রওশন আলী ও খাদিজা পারভীন শিল্পী দম্পতির তিন সন্তানের মধ্যে বড় তামান্না নূরা। তামান্না যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া ডিগ্রি কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে এবার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছিলেন। রবিবার প্রকাশিত ফলে পিইসি, জেএসসি ও এসএসসির মতো এইচএসসিতেও জিপিএ-৫ পেয়েছেন তিনি। তার বাবা রওশন আলী ঝিকরগাছা উপজেলার ছোট পৌদাউলিয়া মহিলা দাখিল মাদরাসার (ননএমপিও) শিক্ষক। মা খাদিজা পারভীন গৃহিণী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.