২০৪১ সালের পর দারিদ্রতা শুধু ইতিহাসে থাকবে: পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার ব্যবস্থাপনায় মাধ্যমিক পর্যায়ের ৪৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহনে বঙ্গবন্ধু টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন হয়েছে।
বুধবার (২৩ মার্চ) বিকেলে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত খেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. সামছুল আলম।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাজী শরীফুল হাসান এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মতলব-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রুহুল ও মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এম.এ. কুদ্দুছ।
প্রধান অতিথি বক্তব্যে বলেন, দেশে এত পরিমান সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও খেলা-ধুলা ইতোপূর্বে দেশবাসী দেখে নাই। এটা সরকার এ জন্যই আয়োজন করছেন, যাতে নতুন প্রজন্মের মধ্যে নেতৃত্ব গড়ে উঠে। কারণ শিক্ষার্থীরাই আগামী দিনের দেশ নায়ক।
প্রতিমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এমন একটি দেশ গড়তে চাচ্ছেন শেখ হাসিনা তোমাদের জন্য ২০৪১ সালে তোমরা সোনার বাংলা বাস করবে। যেখানে দারিদ্রের কথা ইতিহাস হবে। যে এদেশে দারিদ্রতা ও ক্ষুধা ছিল। ইতিহাস থেকে তা পড়বে কিন্তু বাস্তবে দেখবে না। প্রত্যেকের চাকরী হবে কিংবা ব্যবসা করবে। কেউ বেকার থাকবে না। এটা ২০৪১ সালের আমাদের ঘোষণা ও স্বপ্ন। কোন লোক ক্ষুধার্ত থাকবে না এবং দেশের মানুষ শতভাগ শিক্ষিত হবে।
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে খেলা-ধুলা সম্পর্কে প্রতিমন্ত্রী বলেন, খেলা-ধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বিতর্ক প্রতিযোগিতা কিংবা নাটক হউক সবগুলোতেই তোমরা অংশগ্রহন করবে। লেখা পড়ার পাশাপাশি প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে হয়। লেখাপড়ায় পিছিয়ে গেলে তোমরা হেরে যাবে, আর উঠতে পারবে না। খেলা-ধুলা করে শারীরিক ও মানসিক গঠন ঠিক রাখবে এবং একই সাথে লেখাপড়াও চালিয়ে যাবে।
অনুষ্ঠানে মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ এর সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জুর আহমেদ, মো. মিজানুর রহমান, জেলা ক্রীড়া অফিসার মো. তারিকুল ইসলাম, সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, স্কুল ও মাদ্রাসার শিক্ষক এবং রাজনৈতিক ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেন, মা ও শিশু স্বাস্থ্য রক্ষায় বাংলাদেশ এখন বিশ্বে রোল মডেল। বর্তমান সরকার সবশ্রেণির মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করছে। কোনো ধরণের বৈষম্য নয়, সবার জন্য সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করাই হচ্ছে মূল লক্ষ্য। তাই তো জননেত্রী শেখ হাসিনা মা ও শিশু স্বাস্থ্যের দিকে নজর দিয়েছে। সরকারি স্বাস্থ্যসেবা সব মানুষের দোড়গড়ায় পৌঁছে দেবার লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে। ফলে এখন মাতৃ মৃত্যুর হার অনেকে কমে গেছে।
গজরা ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের উদ্বোধন
বুধবার (২৩ মার্চ) সকালে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার গজরা ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
তিনি বলেন, প্রসূতি মায়েদের নির্ভরতার প্রতীক ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র্র। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র্র স্থাপনের মধ্যদিয়ে শিশু, নারী ও বয়স্কদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় আশার আলো জাগিয়েছে। যার কারনে মতলব উত্তরের গজরা ইউনিয়ন ছাড়াও আশেপাশের এলাকার মানুষ সহজেই চিকিৎসা সেবা পাবেন বলে মনে করেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।
তিনি আরও বলেন, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকার আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। মতলবকে নিয়ে তিনি বলেন আওয়ামী লীগ সরকারের আমলেই মতলব-গজারিয়া সংযোগ সেতু বাস্তবায়ন হবে। এবং এই সেতুটি হবে দেশের দৃষ্টিনন্দন তারের ঝুলন্ত সেতু।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব অ্যাড. মো. নুরুল আমিন রুহুল।
মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার গাজী শরিফুল হাসানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মঞ্জুর আহম্মেদ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস, ইষ্ট কেন্ট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (ইউকে) এর পরিচালক অধ্যাপক ডাঃ মোহাম্মেদ সাকেল।
গজরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদুজ্জামান সরকার ওয়াদুদের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক উপকমিটির সদস্য লায়ন আরিফ উল্লাহ সরকার, ধর্মবিষয়ক উপকমিটির সদস্য শিল্পপতি কাজী মিজানুর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আসাদুজ্জামান, গজার ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শহিদুল্লাহ মাষ্টার, অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল,ফতেপুর পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ, গজরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সানাউল্লাহ মোল্লা।

মতলব উত্তর প্রতিনিধি

Leave a Reply

Your email address will not be published.