নির্বাচন হবে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে : ব্যারিস্টার কায়সার

 

স্টাফ রিপোর্টার

বাংলাদেশ জাতীয়বাদী দল (বিএনপি)’র আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেছেন, শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে নির্বাচন নয়। নির্বাচন হবে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে। আর এই এক দফা এক দাবী নিয়ে আগামীতে বিএনপির আন্দোলন হবে। বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার আহবানে ও তারেক রহমানের নির্দেশে সেই আন্দোলনের জন্য নেতা-কর্মীদের প্রস্তুত থাকতে হবে।
রোববার (৩১জুলাই) বিকেলে চাঁদপুর জেলা বিএনপির আয়োজনে দেশে বিদ্যুৎ ও জ¦ালানী সংকট, সীমাহীন দুর্নীতি এবং নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের উর্দ্বগতির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, শুধুমাত্র দেশে গ্যস সংকটই নয় বরং আমাদের মৌলিক অধিকার নেই। দেশের আইনের শাসন নেই। কথা বলা আমার সাংবিধানিক অধিকার। রাষ্ট্র যখন অন্যায় ও অবিচার করে তখন সেই শাসকের বিরুদ্ধে কথা বলার অধিকার আমাদের আছে। কিন্তু যখন অধিকারের কথা বলতে যায়, তখন আমাদের টেক্সের টাকায় বেতন নেয়া পুলিশ বাহিনী আমার ভাইকে গুলি করে হত্যা করে। পুলিশ ভাইদের প্রতি অনুরোধ, আইন হাতে তুলে নিবেন না। তাহলে এদেশের মানুষ আপনাদের ক্ষমা করবেন না।
কায়সার বলেন, চাঁদপুর অত্যন্ত সমৃদ্ধশালী একটি জেলা। দু:খজনক হল, এই জেলার বিদ্যুৎ খেয়েছে, গ্যাস খেয়েছে, বালু খেয়েছে এবং মাটিও কিন্তু খেয়েছে। যে কারণে জেলার সর্বোচ্চ কর্মকর্তাকে এই জেলা থেকে চলে যেতে হয়েছে। এই চিত্র শুধু চাঁদপুরে নয়, সারাদেশের চিত্র একই। তারা শুধু খাই খাই করছে।
সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনরি সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সেলিম উল্যাহ সেলিম।
জেলা বিএনপি নেতা অ্যাড. জাহাঙ্গীর খান ও শহর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. হারুনুর রশিদের যৌথ সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মুনির চৌধুরী, অ্যাড. বাবর, ফরিদগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি শরীফ মো. ইউনুছ, কচুয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি হুমায়ুন কবির প্রধান, শহর বিএনপির সভাপতি শাহজালাল মিশনসহ উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা মিছিল নিয়ে বিভিন্ন এলাকা থেকে সমাবেশে অংশগ্রহন করে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.