ফরিদগঞ্জে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পেরে খুশি ভোটাররা

‘আগে যারা ভোট কেন্দ্রে গেলে কইতো ভোট শেষ, চাচা বাড়ি চলি যান। এবার তারাই বাড়ি আইয়া কইতো চাচা ভোট দিতে আইয়েন।’ ফরিদগঞ্জের বিভিন্ন গ্রামের বয়োবৃদ্ধরা এবার ভোট দিতে পেরে স্বস্তি প্রকাশ করে এমন মন্তব্যে করেছেন।
ভোটের কয়েকদিন আগে নির্বাচনী এলাকার বৃদ্ধরা বলেছিলেন এবার ভোট দিতে না পারলে অভিশাপ দেব। এবার ভোট দিতে পেরে ওই বৃদ্ধরা বলছেন নামাজ পড়ে সবাইকে দোয়া করেছি। গত ৫ জানুয়ারী ফরিদগঞ্জের ১৩ ইউনিয়নে ছোটখাট কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত ভোটের দিন এবার স্বাচছন্দে ভোট দিতে পেরে ভোটাররা অনেকেই স্বস্তি প্রকাশ করেছেন্।

বেশ কয়জন ভোটার তাদের প্রতিক্রিয়া সন্তোষ প্রকাশ করে বলেছেন, বিভিন্ন হুমকি ধুমকি ও মামলা হামলার ভয়ে ভোট দিতে না পারার আশংকা ছিলেন অনেকেরই। তবে জেলা প্রশাসনের কঠোর অবস্থানে থেকে নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালনের কারনে এবার সাধারন ভোটারগন ভোট দিতে পেরেছেন বলে অনেকেই জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিংচ্ছুক বেশ কয়জন ভোটার জানান, জনগণই যে ক্ষমতার উৎস, তার প্রমান হলো এবারের অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে পছন্দের প্রার্থীকে ভোটাররা তাদের ভোট দিতে পারা।

অবাধ ও শান্তিপূর্ন পরিবেশে অনুষ্ঠিত ভোটে জয়ী হওয়া ৯ নং গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগের মনোনীন নৌকা প্রতীকের প্রভাবশালী প্রার্থী সোহেল চৌধুরী নিজে পরাজয় বরন করেও একই ইউনিয়নের বিজয়ী বিদ্রোহী প্রার্থী শাহ আলম শেখকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইস বুকে নিজের আইডির মাধ্যমে অভিনন্দন জানিয়ে তার উদার রাজনীতির বিরল দৃষ্টান্ত দেখিয়েছেন।

তবে স্থানীয়রা বলছেন মুক্ত পরিবেশে ফরিদগঞ্জে অনুষ্ঠিত ১৩টি ইউপি নির্বাচনটি ফরিদগঞ্জবাসীর জন্য যুগযুগ ধরে একটা ইতিহাস হয়ে থাকবে।

তবে এবারের অনুষ্ঠিত নির্বাচন নিয়ে এখন বিশেষ করে ফরিদগঞ্জের সর্বত্র চাঁদপুরের সুযোগ্য জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ ও সুযোগ্য জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদের (পিপিএম) জনস্বার্থে প্রশংসনীয় কাজের ভূয়সী প্রশংসা করছেন প্রার্থী ও ভোটরগণ।

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *