বাংলার মানুষ কখনো কারো কাছে মাথা নত করে না

স্টাফ রিপোর্টার তেল, গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানিসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য-মূল্যের বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে চাঁদপুর জেলা বিএনপি। ২ মার্চ বুধবার বিকেল ৩ টায় চাঁদপুর জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সম্মূখে মিনিট্রাকের উপর অস্থায়ী মঞ্চ তৈরি করে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে ৩ রাস্তা ছিল কানায় কানায় পূর্ণ।
সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপার্সেনের উপদেষ্টা ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু। তিনি বক্তব্যে বলেন, বাংলার মানুষ বিদেশী, জাতি, গোষ্টি কারো কাছে মাথা নত করেনি। আমরাও করবো না। ১৬ কোটি ৯৯ লক্ষ মানুষের মুখে একই আওয়াজ খুনি হাসিনার আওয়াজ। যুব সমাজ ও নতুন প্রজন্ম তোমরা মনে শক্তি ও সাহস আন।
তিনি আরও বলেন, প্রশাসনের কিছু রুই-কাতলা ধরা পড়ছে। তারা নাকি বিদেশ যেতে পারবে না। চাঁদপুরে প্রশাসনের যারা আমাদের নেতাকর্মীদের গুলি করে হত্যা করেছেন, নির্যাতন করেছেন। তাদের তালিকা আমাদের কাছে রয়েছে। বাংলার মানুষ কারো কাছে মাথা নত করেনি। আমরাও করবো না। ১৬ কোটি ৯৯ লক্ষ মানুষের মুখে একই আওয়াজ খুনি হাসিনার আওয়াজ। যুব সমাজ ও নতুন প্রজন্ম তোমরা মনে শক্তি ও সাহস আন। প্রশাসনের কিছু রুই-কাতলা ধরা পড়ছে। তারা নাকি বিদেশ যেতে পারবে না। চাঁদপুরে প্রশাসনের যারা আমাদের নেতাকর্মীদের গুলি করে হত্যা করেছেন, নির্যাতন করেছেন। তাদের তালিকা আমাদের কাছে রয়েছে।
চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও কেন্দ্রীয় বিএনপির প্রবাসী কল্যান বিষয়ক সম্পাদক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক এমপি রাশেদা বেগম হীরা, চাঁদপুর-৪ ফরিদগঞ্জ আসনের বিএনপির মনোনিত এম এ হান্নান।
চাঁদপুর জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক দেওয়ান সফিকুজ্জামান ও মুনির চৌধুরীর যৌথ পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় যুবদলের সহ-সভাপতি জাকির হোসেন সিদ্দিকী, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছা সেবক দলের সহ-সভাপতি আবু তাহের পাটওয়ারী, সহ-সাধারণ সম্পাদক সারওয়ার ভূঁইয়া, পৌর বিএনপির সভাপতি আক্তার হোসেন মাঝি, ফরিদগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি শরীফ মোঃ ইউনুস, সাধারণ সম্পাদক আমানত গাজী, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. হারুনুর রশিদ, সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহজালাল মিশন, কচুয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি হুমায়ুন কবির প্রধান।
বক্তারা বলেন, এই মূহুর্তে দরকার নিরপেক্ষ সরকার। দ্রব্যমূল্যসহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম দিনদিন বাড়ছেই। সরকারের কোন মাথা ব্যাথে নেই। মেঘা প্রজেক্টের মাধ্যমে তারা মেঘা মেঘা দূর্নিতি করে। এই পেটুয়া সরকার প্রধান যদি নিজের টাকায় বাজার করতেন, তাহলে বুঝতেন দ্রব্যমূল্যের কি হাল। আপনিতো জনগনের টাকা আত্মসাৎ করে বাজার করেন, তাই জনগনের দুঃখ বুঝেন না। আর ঘরে থাকার সময় নেই। বাংলার জনগন আজ দ্রব্যমূল্যের চাপে পৃষ্ট। আমরা জনগনকে সাথে নিয়ে এই জুলুম সরকারের পতন নিশ্চিত করতে সকলে ঐক্যকদ্ধ হয়ে আন্দোলন সংগ্রামে মাঠে থাকবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.