বৃষ্টির পানিতে মুহূর্তেই উড়ে গেলো তাপদাহ

স্টাফ রিপোর্টার গতকাল বৃহস্পতিবার (৯ জুন) বেলা ১টা নাগাদ হঠাৎ আকাশে কালো মেঘ। এরপর শুরু হয় মুষলধারে বৃষ্টি। চাঁদপুর শহরসহ বিভিন্ন এলাকায় টানা দেড়ঘন্টার। বৃষ্টি, সঙ্গে রয়েছে মেঘের গর্জনও। মুহুর্তের মধ্যে বৃষ্টির পানিতে তপ্ত রাজপথ ভিজে একাকার।
তবে বৃষ্টির কারণে প্রস্তুতি ছাড়া ঘর থেকে বের হওয়া লোকজনকে কিছুটা বিপাকে পড়তে হয়েছে। ভিজে ভিজে কাউকে কাউকে নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধান করতে দেখা গেছে। আকস্মিক বৃষ্টিতে শহরের লোকজন আটকা পড়ে যার জন্য স্থান নিতে হয়েছে আশেপাশের দোকানপাট মার্কেট বিপনী বিতান রেল স্টেশনে অনেকে আবার ভিজতে ভিজতে বাড়ি ফিরতে দেখা গেছে। ভারী বৃষ্টিপাতের দরুন শহরে প্রধান প্রধান সড়কগুলোতে পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। বাইতুল আমিন রেলওয়ে জামে মসজিদ সম্মুখ, চিত্রলেখার মোড়, ওয়ান মিনিটের পর প্রেসক্লাব সড়ক, জেলা প্রশাসক কার্যালয় ভেতরের সড়ক, মাদ্রাসা রোড সহ অন্যান্য সড়কগুলোতে হাঁটু পানি জমে যায়। দুপুর আড়াইটার সময় বৃষ্টি কমে আসলে আটকা পড়া মানুষ আবার সড়কে বের হয়।এ সময় রাস্তার প্রতিটি মোড়ে তীব্র যানজট লেগে যায়। বৃষ্টি কমার সঙ্গে সঙ্গে স্কুল-কলেজ ছুটি হওয়ায় রাস্তায় শিক্ষার্থীদেরও ঢল নামে। অনেকে বৃষ্টির পানিতে এবং শহরের একমাত্র লেকটিতে নেমে ছাত্ররা আনন্দে গোসলে মেতে উঠে।
এদিকে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, মৌসুমি বায়ু এখন সারাদেশেই ছড়িয়ে পড়েছে। এর প্রভাবে চাঁদপুরসহ দেশের বেশির ভাগ অঞ্চলে বৃষ্টি হচ্ছে। কোথাও হালকা আবার কোথাও মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হচ্ছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। ঝড়ো হাওয়ার কারণে নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।
আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক বলেন, ‘মৌসুমী বায়ু এখন সারা দেশের ওপরে অবস্থান করছে। তাই ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কম-বেশি বৃষ্টি হচ্ছে। এই বায়ুর কারণে নদীবন্দরসহ উপকূলীয় এলাকার ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এ জন্য নদীবন্দরগুলোতে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।’
আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ বিহার থেকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দুর্বল থেকে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।
আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়, রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়, ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং বরিশাল ও খুলনা বিভাগের দু’-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাধারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের উত্তরাঞ্চলের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *