ফরিদগঞ্জে ভাসমান দোকানে পথচারীদের দুর্ভোগ

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলা বাজারের ফুটপাত দখল করে অসংখ্য ভাসমান দোকান বসানো হয়েছে। এতে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। সড়ক দিয়ে চলাচল করতে পথচারীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। পথচারীদের বাধ্য হয়ে হাঁটতে হয় মূল সড়ক দিয়ে। এতে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।
এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী।
সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে, ভান্ডারী মহল, উপজেলা পরিষদের গেটের সামনে, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও মাজার এলাকা এবং থানা পর্যন্ত ভাসমান দোকানপাট গড়ে উঠেছে। এদিকে মালবাহী যানবাহন সড়কের ওপর রেখে মালপত্র লোড-আনলোড করা হয়। এতে সড়কে প্রতিনিয়ত যানজট লেগেই থাকে। চলাচল করতে পথচারীদের বেগ পেতে হয়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, তাঁরা মাসিক ভাড়া দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করেন।
আলমগীর হোসেন, আবুল কালাম, মনির উদ্দিনসহ বেশ কয়েকজন বলেন, ‘ফুটপাত জনগণের চলাচল করার জন্য। কিন্তু ফুটপাতের সুবিধা পাচ্ছে না পৌরবাসী। এ পথ দিয়ে যখন হাঁটি, মনে হয় ব্যস্ত কোনো সড়ক দিয়ে যাচ্ছি। আমাদের সমস্যা দেখার কি কেউ নেই? রাত বা দিন, সড়কে ভিড় লেগেই থাকে। শান্তি থাকছে না। অস্থিরতা শুরু হয়েছে। সুষ্ঠু পরিকল্পনা করে শহরকে সুন্দর পরিচ্ছন্ন রাখা জরুরি।’ পথচারী আবুল কালাম বলেন, সড়কের পাশে ভাসমান দোকান থাকায় ঠিকমতো হাঁটা যায় না। দিনের বেশির ভাগ সময়ই সড়কে মানুষের জট তৈরি হয়।
আবু সুফিয়ান নামের এক পথচারী বলেন, উপজেলা গেটের সামনে মূল সড়কের পাশে যেভাবে দোকানপাট গড়ে উঠেছে, যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।
৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জাকির হোসেন গাজী বলেন, ‘বিষয়টি অবগত হয়েছি। মেয়রের সঙ্গে যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’
এ বিষয়ে পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী বলেন, ফুটপাতে অবৈধভাবে বসানো দোকানপাট অপসারণের জন্য পৌর কর্তৃপক্ষ প্রচার চালাচ্ছে। সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বাজার এলাকায় মালবাহী যানবাহন লোড-আনলোড করা নিষেধ। কেউ সিদ্ধান্ত অমান্য করলে আইন অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্টাফ করেসপন্ডেট, ২৬ মার্চ ২০২২

Leave a Reply

Your email address will not be published.