ভেঙ্গে পড়লো চাঁদপুর রেল স্টেশন প্লাটফর্মের সদ্য নির্মিত দেয়াল

স্টাফ রিপোর্টার চাঁদপুর-লাকসাম রেলপথে প্রতিদিন যাতায়তকারী যাত্রীদের ট্রেনে নিরাপদে উঠার প্রয়োজনে ২মাস যাবত ১২শ’ ফুট দেয়ালের কাজ চলে আসছে। স্থানীয় রেলওয়ের এক জন কর্মকর্তা জানান, চাঁদপুর রেলওয়ে স্টেশনে ব্যাপক আকারে কোটি টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে কাজ করে যাচ্ছে। সে নির্মান করা নবনির্মিত স্টেশন ফ্লাটফর্মের দেওয়াল নিন্মমানের মালামাল দিয়ে কাজ করায় ব্যবহারের পুর্বেই বৃস্টির পানির চাপে ভেঙ্গে পড়ছে বলে রেলওয়ে স্থানীয় কর্মকর্তা ও এলাকাবাসী অভিযোগ আকারে জানিয়েছেন।
গত রোববার রাতে ও রোববার দিনের ২দফা বৃস্টি হওয়ার ফলে সে বৃস্টির পানির জমাট বেধে ও পানির প্রচন্ড চাপে ১২শ’ফুট দেওয়ালের মধ্যে প্রায় ২শ’ফুট লম্বা ও ৪০ফুট চওড়া দেওয়াটি ভেঙ্গে রেলওয়ের ব্যাপক ক্ষতিসাধিত হয়েছে বলেও স্থানীয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানান।
খবর নিয়ে জানা গেছে,এর পূর্বে গত ২০২১ সালে সেপ্টেম্বর মাসে এ কাজের রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর অফিসের কাছে বালি ও পানির চাপে বিশাল এলাকা নিয়ে ফ্লাটফর্মের দেওয়াল ভেঙ্গে পড়ে।
বাংলাদেশ রেলওয়ের চাঁদপুর বড় স্টেশন এলাকার রেলওয়ে স্টেশন ফ্লাটফর্মের নবনির্মিত নির্মান কাজের ২০০ ফুট পাকা দেওয়াল ভেঙ্গে পড়েছে। স্থানীয় এলাকাবাসী ও সচেতন যাত্রীদের অভিযোগ প্রায় ২শ’ ফুট লম্বা ও প্রায় ৪০ ফুট চওড়া মাছ ঘাট সংলগ্ন স্থানের স্টেশন ফ্লাটফরমে ঠিকাদার নিন্মমানের কাজ করায় দেওয়াল নির্মানের ১মাসের মাথায় ব্যবহারের পূর্বেই এ ২০০ ফুট বাই ৪০ ফুট ফ্লাটফরমের পাকা দেওয়াল সামান্য বৃস্টির পানির চাপে ভেঙ্গে গেছে। আজ সোমবার ভেঙ্গে পড়াস্থানে রেলওয়ে ঠিকাদার পুনরায় স্টেশন ফ্লাটফরমের দেওয়াল নির্মান কাজ শুরু করলে স্থানীয়দের অভিযোগের ফলে চাঁদপুর পৌর কাউন্সিলর মো: সফিকুল ইসলাম সে দেওয়াল নির্মান কাজ বন্ধ করে দিয়েছে।
রেলওয়ের সংশ্লিস্ট কর্তৃপক্ষের একই কথা বৃষ্টির পানির চাপে ভেঙ্গে যায় নবনির্মিত ফ্লাটফরম। এ কাজ করছেন ঢাকার ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান মেসার্স বেলাল এন্টার প্রাইজ। ঠিকাদার হচ্ছে হাজী বেলাল আহম্মেদ ।
তবে এ কাজটি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান পুনরায় করে দিতে হবে বলে চাঁদপুর-লাকসামের দায়িত্বরত কর্মকর্তা এসএসএ/ই ওয়াকর্স মো: আতিকুর রহমান জানান। ঘটনাটি ঘটেছে, গত রোববার রাত থেকে বিকেলের মধ্যে রেলওয়ে মাছঘাট সংলগ্ন উত্তর দিকে ৪০ ফুট বাই এ ২০০ ফুট ফ্লাটফরমের দেওয়ালটি পর্যায়ক্রমে ভেঙ্গে পড়ে। ভাগ্যক্রমে জনসমাগমকৃত স্থানটিতে এ দুর্ঘটনা ঘটলেও স্থানীয় কোন মানুষের বা যাত্রীর ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।
চাঁদপুর শহরের বড় স্টেশন এলাকায় বসবাসকারী ও রেলওয়ে চাঁদপুরে কর্মরত দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা এসএ/ই ওয়ার্কস মো: আব্দুর নূর জানান,চাঁদপুর বড় স্টেশন এলাকার ফ্লাটফরম বর্ধিত করার কাজ চলছে। এ কাজ বিগত ৬/৭মাস যাবত চলছে। বর্তমানে যে স্থানে দেওয়াল ভেঙ্গে পড়েছে সে কাজ গত প্রায় ১মাস পূর্বে করা হয়েছে। বর্তমানে ফ্লাটফরমে কাজ চলমান রয়েছে।
তবে স্থানীয় এলাকাবাসী ও বরিশালে যাতায়াতকারী যাত্রীরা জানান, ১০ইঞ্চি দেওয়াল সামান্য বৃষ্টির কারনে ধবসে পড়ে ও দেওয়াল ভেঙ্গে যেতে পারে না। এখানে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নির্মমানের কাজ করার ফলে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। এখানকার স্থানীয় কর্তৃপক্ষের তদারকি সঠিক ভাবে না করার ফলে ্এমনটি হয়েছে।
এ বিষয়ে চাঁদপুর-লাকসামের দায়িত্বরত কর্মকর্তা এসএসএ/ই ওয়াকর্স মো: আতিকুর রহমান বলেন,ঢাকার ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান বেলাল এন্টার প্রাইজ রেললাইন পাশে সম্পাসারন ও ফ্লাটফরমের কাজের জন্য টেন্ডার প্রক্রিয়ায় প্রাায় ১ কোটি ৯০লাখ টাকায় এ কাজটি করছেন। এখানে কোন আরসিসি পিলার স্থাপন করে কাজ করা হচ্ছেনা। রেলওয়ের নিজস্ব তহবিল থেকে এ কাজটি করা হচ্ছে। যে কাজ হচ্ছে,তা’ নকশা অনুযায়ী করা হচ্ছে। অতিবৃস্টির কারনে পানি জমে এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *