মতলব দক্ষিণ উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ককে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টার: চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক মিরাজ মাহমুদ জিসানকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। ১৫ মার্চ মঙ্গলবার বিকেল ৬ টায় উপজেলার বাইপাস সড়কে এই ঘটনা ঘটে।
রক্তাক্ত জখম অবস্থায় আহত জিসানকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় রেফার করে।
ছাত্রদল নেতাকর্মীরা জানান, ১৫ মার্চ বিকেলে উপজেলার ৪নং নারায়নপুর ইউনিয়ন ছাত্রদলের সেক্রেটারি মালেক পাটোয়ারীকে একা পেয়ে স্থানীয় শরীফ উল্লাহ টিটু, ইদ্রিস সরকার মুন্না, শাহাদাত হোসেন অভি, রানা প্রধান, সাইফুল ইসলাম লিংকন, জনি, জহির, ইসমাইল, রাশেদ, জাহাঙ্গীরসহ অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা ২দফায় পিটিয়ে আহত করে।
খবর পেয়ে উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক মিরাজ মাহমুদ জিসান ঘটনাস্থলে যায়। সেখানে উল্লেখিত সন্ত্রাসীরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মিরাজ মাহমুদ জিসানকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে। তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বুকে- পিঠে এবং কোমরেসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে। খবর পেয়ে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় প্রথমে মতলব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে তাকে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
খবর পেয়ে চাঁদপুর জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক দেওয়ান মো. সফিকউজ্জামান, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল গাজী বাহার, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ইমাম হোসেন গাজীসহ বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা মিরাজ মাহমুদ জিসানকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান। এ সময় তারা এই ঘটনায় খুবই মর্মাহত হন এবং দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।
এরপর হাসপালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মিরাজ মাহমুদ জিসানের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় এবং তার শরীরে রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় রেফার করে।
বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তিনি ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এই ঘটনায় মতলব দক্ষিণ উপজেলা ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা অবিলম্বে এই ঘটনার সাথে জড়িত সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.