চাঁদপুরে মাদক নির্মূলে প্রশাসন ও রাজনীতিবিদদের সদিচ্ছা প্রয়োজন

চাঁদপুর জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ বলেছেন, দেশের অন্যসব জেলার চেয়ে চাঁদপুরের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো। তবে মাদক কিছুটা বেড়েছে।রেলপথে মাদক আসে। জেলা প্রশাসক বলেন এ ক্ষেত্রে রেল পুলিশকে আরো বেশি সচেষ্ট থাকতে হবে। নজরদারী জোরদার করতে হবে। মাদকের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ অভিযান চালাবেন।

কোন ছাড় দিবেন না। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরসহ অন্যান্য দপ্তরগুলো প্রয়োজনে পুলিশ সুপারের সহযোাগতা নিন। আমরা প্রশাসন থেকে সর্বাত্মক সহযোগীতা করবো। মাদক ব্যবসায়ীরা আদালত থেকে সহজে জামিন পেয়ে যায়। এ বিষয়ে আইনজীবীরা ভূমিকা রাখতে পারেন। আপনারা আদালতে বিষয়গুলো বলবেন।

একই সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকশহরের মাদক নির্মূলের জন্য জোড়ালো দাবী জানান। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, মাদক নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বারবার হুঁশিয়ারি করে বলেছেন কোন অবস্থাতেই মাদকে ছাড় দেওয়া হবে না।

আমরা প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানাই। মাদক নিয়ে যারা দলের পরিচয় দেয় তাদেরকে দুইটা বারি বেশি দিতে তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অনুরোধ জানান তিনি।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল বলেন, চাঁদপুরে মাদক বেড়ে গেছে। দলের নাম ভাঙ্গিয়ে মাদকে জড়িয়ে বদনাম করবে। তাকে কোন অবস্থায় ছাড় দেওয়া হবে না। দল কোন খারাপ কাজে নেতৃত্ব দেয় না।

কেউ যদি দলের নাম ভাঙ্গিয়ে নারী ও মাদকের সাথে সম্পৃক্ত থাকে তাকে আমরা দল থেকে বহিষ্কার করব। তিনি আরো বলেন, মাদকে ছোট ছোট চালান ধরা হয়। বড়দের কে ধরা হয় না কেন। অচিরেই যারা মাদকের সাথে জড়িত তাদেরকে আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের কাছে অনুরোধ জানান।

সভায় মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা একেএম দিদারুল আলম মাদক বিষয়ে জানান, বাগাদীতে এক ব্যবসায়ীকে ইয়াবাসহ আটক করা হয়। আটক ব্যক্তি আওয়ামী লীগের দলীয় পরিচয় দেন এবং তিনি অপরাধীয় হয়ে ভাড়াটিয়া লোক নিয়ে মানববন্ধন করেন।

গতকাল ১২ সেপ্টেম্বর রোববার অনুষ্ঠিত সভায় চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের একই রকম বক্তব্য জেলার আইনশৃঙ্খলা উন্নয়নে ভালো লক্ষণ বলে মনে করেন সভায় উপস্থিত কর্মকর্তারা। আমরা মনে করি চাঁদপুরে মাদক নির্মূলে প্রশাসন ও রাজনীতিবিদদের বক্তৃতা বিবৃতি নয়, প্রয়োজন সদিচ্ছার। আন্তরিকতার যে সুবাতাস বইছে তা যেন চলমান থাকে।

কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েল

Leave a Reply

Your email address will not be published.