মতলব উত্তরে নবনির্মিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে সভায় স্বাধীনতা আমাদের জাতীয় জীবনের শ্রেষ্ঠ অর্জন

সংসদ সদস্য আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রুহুল বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধারা দেশের জাতীয় সম্পদ। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে তাদের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি। কারণ মুক্তিযোদ্ধারাই পাক হানাদারদের কাছ থেকে বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছে।

মুক্তিযোদ্ধারা দেশ স্বাধীন করেছিলেন বলেই বাংলার মানুষ আজ স্বাধীনভাবে বাঁচতে শিখেছে, কথা বলতে শিখেছে। ১৯৭১ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে জীবন বাজি রেখে মুক্তিযোদ্ধারা পাকহানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে দেশ স্বাধীন করেছেন।

গতকাল রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে মতলব উত্তর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান করে এবং মুক্তিযোদ্ধের চেতনাকে লালন করেই আমরা এই দেশ ও জাতিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবো।

তিনি আরও বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধারাই জাতির সূর্য সন্তান। আর স্বাধীনতা আমাদের জাতীয় জীবনের শ্রেষ্ঠ অর্জন। কারও দান কিংবা অনুকম্পা নয়, লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলার এই স্বাধীনতা। মুক্তিযুদ্ধে নারী মুক্তিযোদ্ধাদের অবদানও অনস্বীকার্য। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও স্বাধীনতার ইতিহাস ছড়িয়ে দিতে হবে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের মাঝে। স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস নতুন প্রজন্মকে জানাতে হবে। তবেই তারা গৌরবময় স্বাধীনতাকে সমুজ্জ্বল রাখতে পারবে। এসময় মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সোনার বাংলা গড়ার প্রক্রিয়ায় অবদান রাখার জন্য মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের সভাকক্ষে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন রুহুল।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গাজী শরিফুল হাসান এর সভাপতিত্বে ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোজাম্মেল হক এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এম এ কুদ্দুস।

বক্তব্য রাখেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল, উপজেলা প্রকৌশলী সাইফুল ইসলাম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব সমাজসেবা কর্মকর্তা আনিছুর রহমান তপু, চাঁদপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ও মুক্তিযুদ্ধকালীন কমান্ডার মিয়া মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস ছাত্তার, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম সরকার প্রমুখ

মতলব উত্তর প্রতিনিধি

Leave a Reply

Your email address will not be published.