শিশুদের সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ার অঙ্গীকার

স্টাফ রিপোর্টার: চাঁদপুরে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২ তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ৫০টি জাতীয় পতাকা, মুক্তিযুদ্ধাদের নিয়ে গাড়ি বহর, আলোচনা সভা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।

১৭ মার্চ, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে এ আয়োজন শুরু করেন জেলা প্রশাসন। সকাল ১১ টায় চাঁদপুর স্টেডিয়ামে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপ্রধানের বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। এসময় তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল সমৃদ্ধশীল একটি সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করা।

আর সেই সোনার বাংলা গড়তে তার সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলছে। দেশের উন্নয়নে তিনি নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় আমাদের এই বাংলাদেশে বিভিন্ন খাতে উন্নত পরিসরে আজ সোনার বাংলায় রূপ নিতে যাচ্ছে। আমরা এখন অনেক সমৃদ্ধশীল হতে পেরেছি।

তিনি বলেন, মহামারী করোনা কালে এবং বর্তমানে ইউক্রেনে যুদ্ধের কারণে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পেলেও সাধারণ মানুষের জন্য শেখ হাসিনা কিন্তু ঘরে বসে নেইই। তিনি দেশের মানুষের কাছে সুলভ মূল্যে খাবার পৌঁছে দেওয়ার জন্য টিসিবির পণ্যের ব্যবস্থা করেছেন। এতে সাধারণ মানুষ স্বল্প মূল্যে পণ্য ক্রয় করতে পেরে অনেক উপকৃত হচ্ছেন। যেকোনো অন্যায়-অপরাধ সহ সবকিছু প্রশাসনের একার পক্ষে প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়। এতে জনগনের সহযোগিতা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। যেখানে জনগণ সমাজের যে কোন অন্যায় অপরাধ এবং দুর্নীতি নিয়ে কথা বলার সাহস পাবে। সেই জনগনই পারে প্রশাসনকে সহযোগিতা করতে। তাই কোন অন্যায় অপরাধ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে জনগণই অনেক বড় শক্তি। আর এই শক্তি আমাদেরকে কাজে লাগাতে হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, (বিপিএম-বার) , জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাসির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, সিভিল সার্জন শাহাদাত হোসেন, এন এস আই ডেপুটি ডাইরেক্টর,এবি এম আরমান, প্রেসক্লাবের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলন, সাবেক সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী সহ চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন দৈনিক সুদীপ্ত চাঁদপুরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এম আর ইসলাম বাবু।

আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটেন অতিথিবৃন্দ। এছাড়া বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.