সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন : জেলা প্রশাসক

আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) অঞ্জনা খান মজলিশ। চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) অঞ্জনা খান মজলিশ বলেছেন, আমরা আলোচনা যা করলাম, সার্বিকভাবে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বেশ ভালো আছে। তবে যে কথা আমরা সবসময়ই বলি আত্মতুষ্টিতে ভুগলে হবে না, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি যেন আরো ভালো থাকে সেজন্য যার যার অবস্থান থেকে সচেষ্ট হতে হবে। সামনে আমাদের যে চ্যালেজ্ঞটি রয়েছে তা হচ্ছে কোভিড পরিস্থিতি। কোভিড পরিস্থিতির সাথে আমাদের আইনশৃঙ্খলা অনেকটাই জড়িত। কোভিড পরিস্থিতি ক্রমান্বয়ে বিশ্বব্যাপী খারাপের দিকে যাচ্ছে। এরজন্যে আমাদের সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে এবং মাস্ক পরিধান করতে হবে।
রবিবার (৯ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
জেলা প্রশাসক বলেন, কোভিড পরিস্থিতি যদি খারাপের দিকে চলে যায়, তাহলে আমাদের আবার লকডাউনে চলে যেতে হবে। আমরা সেই পরিস্থিতি চাই না। সেই পরিস্থিতি হলে আমাদের অর্থনৈতিক চাকা কিছুটা হলেও স্থবির হয়ে যায় এবং সবার জিবন থমকে যায়। আমরা সেই থমকে যাওয়া পরিস্থিতিতে যেতে চাই না, সবাই আমরা স্বাস্থবিধি মেনে চলব, টিকা নিব এবং সবাই স্বাভাবিক জীবন-যাপন করব। যেহেতু চাঁদপুর একটি নৌ-বন্দর সেহেতু কোভিড পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার আশংকা বেশি থাকে। নদী,রেল এ সড়ক পথে তিন দিক দিয়ে এখানে বিভিন্ন জেলার লোকজন আসতে পারে। একারনেই সংক্রমনের ঝুঁকিটা অনেক বেশি। এই কারনে আমাদের যে ৮৯ টি কমিটি রয়েছে ইউনিয়ন ও পৌরসভাতে তা সক্রিয় এবং কার্যকরি করতে হবে। সবার টিকা নেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের টিকার ব্যবস্থা করেছেন, আমাদের সবার টিকা নিতে হবে। শুধু ষাটোর্ধ্ব নয় সম্মুখসারির যোদ্ধারাও ম্যাসেজ ছাড়াই বুস্টার ডোজ ভ্যাকসিন নিতে পারবেন। টিকা নিয়ে ফেললে আমরা অনেকটাই ঝুঁকিমুক্ত থাকতে পারব।
নির্বাচন প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসক বলেন, সুন্দর একটি নির্বাচন আমরা পার করেছি। ইতিমধ্যে আমাদের সবকটি উপজেলা নির্বাচন সম্পন্ন করেছি। কিছু ছোট-খাটো বিশৃঙ্খলা হয়েছে, তবে তা কেন্দ্রে হয় নাই। নিজেদের কোন্দলের কারনেই এই অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। বাংলাদেশের অন্যান্য জায়গায় যেধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে, তার তুলনায় চাঁদপুরের অনেক সুন্দরভাবে আমরা নির্বাচন সম্পন্ন করতে পেরেছি। সম্মিলিতভাবেই আমরা এমন সুন্দর নির্বাচন সম্পন্ন করতে পেরেছি। জনগনের ইচ্ছার বাস্তবায়ন হয়েছে। মানুষ ভোট কেন্দ্রে এসে ভোট দিয়েছে। উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। এটা আমাদের অনেকবড় একটা সফলতা। সবার সহযোগিতার কারনে আমাদের এই সফলতা অর্জন হয়েছে।
যানজট প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসক বলেন, আমাদের রাস্তার তুলনায় গাড়ির সংখ্যা অনেক বেশি। অটো এবং সিএনজির কারণে আমাদের যানজট বাড়ছে। যারমধ্যে বেশিরভাগই হচ্ছে রেজিষ্ট্রেশন বিহীন। রেজিস্ট্রেশন বিহীন যানবাহন চলছে বিধায় শহরে অনেক যানজট হচ্ছে। সমন্বিত প্রচেষ্টা ছাড়া এই যানজট নিরসন করা সম্ভব নয়। শুধুমাত্র সিএনজি নয় বাস-ট্রাক এর ফিটনেস আছে কিনা তার তদারকি করতে হবে। প্রতিটি লঞ্চের ফিটনেস আছে কি না তারও তদারকি করতে হবে। তাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঠিকঠাক আছে কিনা তার তদারকি করে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। চাঁদপুর আমাদের নৌবন্দর আমরা চাই না চাঁদপুরে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটুক।
জেলা প্রশাসক আরো বলেন, প্রতিটি বড়বড় মন্দিরে সিসি টিভি ক্যামেরা যেন লাগানো হয়। সিসি টিভি ক্যামেরা ছাড়া বড় বড় মন্দির নিরাপদ নয়। কোনরকম অপ্রীতিকর ঘটনার তথ্য সিসি টিভির মাধ্যমে উদঘাটন করা সম্ভব হয়। মন্দিরের প্রতিমাগুলো নিরাপত্তার জন্যে এটা একটা সুবিধাজনক পন্থা। আমরা চাই চাঁদপুরে যেন পূর্বের মতো কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে। অতীতের ঘটনা আমাদের অনেক কষ্ট দিয়েছে। গ্রাম আদালতের মামলা যেন খুব দ্রুতই নিষ্পত্তি হয়। যেহেতু নির্বাচন শেষ সেহেতু গ্রাম আদালতের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবাইকে আরো মনোযোগী হতে হবে।
চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ এর কর্মদিবস ১ বছর পূর্তি হওয়া ফুলেল শুভেচ্ছা জানান স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন্নাহার চৌধুরী।
পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ বিপিএম (বার)বক্তব্যে বলেন, নির্বাচনের সময় বেশি ব্যস্ত থাকার কারনে ওয়ারেন্ট তামিল কিছুটা কম হয়েছে। পুলিশ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই কাজ করে। নির্বাচনের সময় যেসব অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে তা সব নিজেদের মধ্যেই হয়েছে। সেসবগুলো ঘটনারই সঠিক তদন্ত হচ্ছে। খুব অল্পসময়ের মধ্যে সেসব ঘটনার আসামীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসবো। নির্বাচন সুষ্ঠ হওযার কারন হচ্ছে আমাদের সবার সমন্বয় থাকা। লোকজন ভোট দিতে পেরেছে এমন একটা সুন্দর ভোট উপহার দিতে পেরেছি। মানুষকে ভোট কেন্দ্রমুখী করার ব্যাপারের আমরা সফল হয়েছি।
তিনি আরো বলেন, করোনা একেক দেশে একেক আবহাওয়ায় একেকরকম কাজ করছে। সরকারের সঠিক পদক্ষেপের কারনে আমরা ভালোভাবে আছি। বর্তমান নতুন ধরনগুলো কেমন হবে তা আমরা বলতে পারছি না। তারজন্যে আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। আমরা চাইবো না রেডজোনে যেতে, আমরা গ্রীন জোনেই থাকতে চাই। সবাইকে বেশি বেশি সতর্ক থাকতে হবে।
অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন সরোয়ার এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, র‌্যাব ১১ এর উপপরিচালক মেজর সাকিব, সিভিল সার্জন ডা. শাহাদাত হোসেন, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা. বদরুন্নাহার চৌধুরী, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান প্রমূখ।
এছাড়াও আরো বক্তব্য রাখেন, ২৫০ শয্যা সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা মো.একেমএম মাহাবুবুর রহমান, জেলা শিক্ষা অফিসার,জেলা মৎস অফিসার গোলাম মেহেদী হাসান, মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গাজী শরিফুল হাসান, হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার , শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরিন আক্তার, ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিউলি হরি, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ, হাইমচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা চাই থোয়াইহলা চৌধুরী প্রমূখ।
আলোচনা সভার সময় চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ এর কর্মদিবস ১ বছর পূর্তি হওয়া ফুলেল শুভেচ্ছা জানান স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন্নাহার চৌধুরী।

স্টাফ রিপোর্টার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *