চতুরঙ্গ ইলিশ উৎসবের প্রস্তুতি সভা

জেগে ওঠো মাটির টানে এ শ্লোগানে চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠন আয়োজিত সিনেবাজ ১৩তম ইলিশ উৎসব আগামী ২-৬ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে হবে। এ উপলক্ষে উৎসব কমিটির সদস্যদের প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় চাঁদপুর সাংস্কৃতিক চর্চা কেন্দ্রে এ সভার আয়োজন করা হয়।

সভাপতির বক্তব্য রাখেন চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের চেয়ারম্যান ও ১৩তম ইলিশ উৎসবের উপদেষ্টা অ্যাড. বিনয় ভূষন মজুমদার। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে আমরাসহ সারাবিশ্ব প্রায় কয়েক বছর যাবত অবরুদ্ধ রয়েছি। যার কারণে সাংস্কৃতিক অঙ্গনও স্থবির হয়ে পড়েছে। এই ভাইরাসের ব্যাপারে প্রত্যেককে সচেতন হতে হবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এই করোনার সময় আমরা ২জন প্রানপ্রিয় বন্ধুকে (মরহুম ইয়াহিয়া কিরন ও তাহমিনা হারুন) হারিয়েছি।

চতুরঙ্গ ইলিশ উৎসব এখন শুধু চাঁদপুরেই সীমাবদ্ধ নেই, এ উৎসব এখন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে গেছে। তাই এ উৎসবকে আমাদের সুন্দরভাবে চালিয়ে নিতে হবে। বর্তামনে ইলিশ উৎপাদন বাড়ছে। ইলিশ উৎপাদন বাড়ার ক্ষেত্রে এ উৎসব অনেকাংশে সহায়তা করেছে। আমাদের আগামীদিনের লক্ষ্য থাকবে এ উৎসবের মাধ্যমে জাটকা নিধন শতভাগ বন্ধ করতে পারবো।

চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের মহাসচিব হারুন আল রশিদ’র সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল বক্তব্য রাখেন সিনেবাজ ১৩তম ইলিশ উৎসবের আহবায়ক কাজী শাহাদাত।

এসময় চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের মহাসচিব হারুন আল রশিদ বক্তব্যে বলেন, কিছু কিছু মানুষ দেখলে আমরা সাহস পাই। এই উৎসবে আমরা সবাই সক্রিয় থাকবো। যেহেতু করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে এই উৎসবটি আমাদের জন্যে চ্যালেঞ্জিং হবে। তবে আমরা সবাই মিলে এ উৎসবটিকে সুন্দরভাবে চালিয়ে নিতে পারবো।

আরো বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ও চতুরঙ্গ ইলিশ উৎসবের উপদেষ্টা তপন সরকার, জেলা প্রশাসন কর্তৃক গঠিত স্বেচ্ছাসেবক বাহিনীর টিম লিডার অধ্যক্ষ ওমর ফারুক, জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন রাসেল, আজীবন সদস্য ইমাম প্রমূখ।

সভার শুরুতে চতুরঙ্গ সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মকর্তা মরহুম ইয়াহিয়া কিরন ও তাহমিনা হারুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও রূহের মাগফিরাত কামনা করে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

নিজস্ব প্রতিনিধি

Leave a Reply

Your email address will not be published.