তাদের স্বপ্ন পূরণ হবে না, শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে মাহবুব উল আলম হানিফ

 

শাহরাস্তি প্রতিনিধি

শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৮ নভেম্বর সোমবার দুপুরে মেহের ডিগ্রি কলেজ মাঠে সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন আওয়ামীলীগের কর্মী হওয়া গর্বের বিষয়। আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। আপনারা ভেবে দেখুন কি ছিল বাংলাদেশ আর এখন কি হয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। একসময় আমাদের মর্যাদা ছিল না, আমরা ছিলাম ভিক্ষুকের জাতি, জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছি। বিএনপি জামায়াত অসত্য কথা বলে ক্ষমতায় আসতে চায় তাদের স্বপ্ন কোন দিন পূরুন হবে না। তাদের নেতা তারেক মুচলেকা দিয়ে চলে গিয়েছে এখন প্রধানমন্ত্রীর হতে চায়। তিনি বিএনপির উদ্দেশে বলেন, আপনারা যখন ক্ষমতায় ছিলেন কোথায় নিয়ে গেছেন

বাংলাদেশকে। আপনাদের আমলে উৎপাদন, বিদ্যুৎ, চিকিৎসায় বিপর্যয় ঘটেছে। শেখ হাসিনার হাত ধরে সকল ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে, উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে এখন আর আমাদেরকে ভিক্ষুকের জাতী কেউ বলে না। ইউক্রেন রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে বিশ্বে মন্দা সৃষ্টি হয়েছে আমরা এসমস্যা কাটিয়ে উঠবো। মির্জা ফখরুল ইসলাম বিভিন্ন সমাবেশে বলেছেন রিজার্ভ শেষ হয়ে গেছে, দেশ শেষ হয়ে গেছে। দেশে ৩৯ বর্তমানে

 

বিলিয়ন ডলার রিজার্ভ রয়েছে। বর্তমানে আইএমএফের তথ্য অনুযায়ী রিজার্ভ রয়েছে ২৯ বিলিয়ন ডলার। বিএনপি জামায়াত যখন ক্ষমতায় ছিল তখন দেশে সাড়ে তিন বিলিয়ন ডলার রিজার্ভ ছিল। তখন দেশ শেষ হয় নাই। এখন দেশে রপ্তানি আয় বেড়েছে মাথা পিছু আয় বেড়েছে।

 

হাওয়া ভবনে কমিশন ছাড়া কোন কাজ হয় নাই। তারা দেশকে উগ্র মৌলবাদী বানিয়েছে। তারেক রহমান সন্ত্রাসীদের গড ফাদার। ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত তাদের শাসন আমলে জনগণ দেখেছে জ্বালাও পোড়াও করে দেশকে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। শেখ হাসিনাকে গ্রেনেড হামলা করে মেরে ফেলতে চেয়েছিল। একটি মামলা করতে দেয়নি তারা আলামত নষ্ট করে দিয়েছে এরা আবার মানবতার কথা বলে। তিনি আরও বলেন, জিয়া কখনোই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে নাই। তিনি ৭১ সালে পাক বাহিনীর পক্ষে কাজ করেছেন। তিনি গোলাম আযমকে দেশে এনে নাগরিকত্ব দিয়েছেন। এখনো জামায়াতে ইসলামী পাকিস্তানি সৈনিক হিসেবে কাজ করছে। জামায়াত বিএনপি একই মায়ের পেটের দুই ভাই। বাংলাদেশের বড় সমস্যা হচ্ছে জামায়াত বিএনপি। আপনারা পাকিস্তানে চলে যান বাংলাদেশের মানুষ খুশি হবে।

সম্মেলনের উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ ভূঁইয়া। শাহরাস্তি উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তফা কামাল মজুমদারের সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ কামরুজ্জামান মিন্টুর সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন। সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম, আওয়ামীলীগের ত্রান ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক বাবু সুজিত রায় নন্দী, এড. নুরজাহান বেগম মুক্তা, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য ড,শামছুল হক ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম দুলাল পাটোয়ারী, সহসভাপতি মঞ্জুর আহম্মেদ, শাহরাস্তি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নাসরিন জাহান চৌধুরী, পৌর মেয়র হাজী আঃ লতিফ। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ মোস্তফা কামাল মজুমদার। সভার শুরুতে সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান মিন্টু। শোক প্রস্তাব উপস্থাপন করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিল্লাল হোসেন তুষার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *