সরকারি খালে বালু উত্তোলনে হুমকিতে জমি বাড়ি ঘর

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়নের রসুলপুর ও লুধুয়া গ্রামের সরকারি খাল থেকে দুইটি ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে একটি বালু মহল। গত প্রায় ২০ দিন ধরে মাটি কাটার মহোৎসব চলছে। এতে করে স্থানীয় কৃষি জমি ও বাড়ি-ঘর হুমকি মুখে পড়েছে। সরকারি সম্পত্তি রক্ষায় প্রশাসনের কোন তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না।

সরজমিনে রসুলপুর গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, সরকারি খাল থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন চলছেই। স্থানীয় রসুলপুর গ্রামের রাকিব, সাব্বির ও জাকির সহ কয়েকজন মিলে সিন্ডিকেট করে ড্রেজার বসিয়েছে। আশপাশের মানুষের কাছে মাটি বিক্রি করছে মোটা অংকের দামে। সরকারি সম্পত্তি লুটে খাচ্ছে তারা। ওই গ্রামের শাহআলম ও তোফাজ্জল হোসেনসহ আরো কয়েকজন বলেন, খালে ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটার কারণে আমাদের ফসলী জমি ও বাড়ি ঘর হুমকির মুখে পড়েছে। বর্ষাকালে বাড়ি ঘর দেবে যাওয়ার আশংকায় ভুগতেছি আমরা। দ্রুত এই ড্রেজার সরিয়ে দিয়ে আমাদের বাড়ি ঘর ও ফসলী জমি রক্ষা করতে প্রশাসনের কাছে আমরা জোড় দাবী জানাই।

এই ইউনিয়নের লুধুয়া গিয়েও দেখা গেল একই দৃশ্য। ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস ও তার সাথে আরো কয়েকজন মিলে এই খালে ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটছে। ফলে স্থানীয়দের মনে আতংক সৃষ্টি হয়েছে। তারা যেন এলাকার ত্রাস। কেউ কিছু বলতে গেলে হুমকি ধামকি দিচ্ছে। এলাকার মানুষ ভয়ে তাদের বিরুদ্ধে কোন কথা বলতে পারছে না। তারা এই অবৈধ কাজে এত শক্তি কোথায় পেল? এটাই এখন প্রশ্ন মানুষের মনে। রসুলপুর গামে ও লুধুয়া গ্রামের সরকারি অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটার বিষয়টি স্বীকার করেছেন উল্লেখিত ব্যক্তিরা। কেন অবৈধভাবে মাটি কাটছেন? এর কোন সঠিক উত্তর দিতে পারেন নাই তারা।

এ ব্যাপারে সহকারি কমিশনার (ভূমি) বলেন, আমরা কয়েকবার অভিযান দিয়ে রসুলপুরের ড্রেজারটি বন্ধ করেছি। আবার যদি চালায় তাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.