সহজলভ্যতাই মাদক বিস্তারের মূল কারণ

কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েল

আধুনিক সভ্যতার একটি ভয়াবহ মাদক ইয়াবা। এটি এক ধরনের নেশাজাতীয় ট্যাবলেট যা মেথাফেটামাইন ও ক্যাফেইনের মিশ্রণ। তবে এর মূল উপাদান মেথঅ্যামফিটামিন। যুক্তরাজ্যের ড্রাগ ইনফরমেশনের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, ইয়াবা ট্যাবলেটটি খেলে সাময়িকভাবে উদ্দীপনা বেড়ে যায়। কিন্তু এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হেরোইনের চেয়েও ভয়াবহ। তথাপি আমাদের দেশে বিশেষ করে চাঁদপুরের আনাচে-কানাচে এখন জ্যামিতিক হারে ইয়াবার ব্যবহারকারী সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

ইতিহাস থেকে জানা যায়, দ্বিতীয় বিশ^যুদ্ধ চলাকালে দীর্ঘ সময় ধরে যুদ্ধক্ষেত্রে থাকা নাৎসি সেনাদের ক্লান্তি দূর করে তাদের মধ্যে উদ্দীপনা ফিরিয়ে আনতে জার্মান প্রেসিডেন্ট অ্যাডলফ হিটলারের আদেশে ইয়াবা আবিষ্কৃত হয়। কিন্তু বর্তমানে ট্যাবলেটটি মাদকদ্রব্য হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, ইয়াবা সেবনে মস্তিষ্ক, নিদ্রাহীনতা, খিঁচুনি, মস্তিষ্ক বিকৃতি, রক্তচাপ বৃদ্ধি, অস্বাভাবিক হৃদস্পন্দন, হার্ট অ্যাটাক, ঘুমের ব্যাঘাত, শরীরে কিছু চলাফেরার অস্তিত্ব টের পাওয়া, অস্বস্তিকর মানসিক অবস্থা, কিডনি বিকল, চিরস্থায়ী যৌন অক্ষমতা, ফুসফুসের প্রদাহসহ ফুসফুসে টিউমার ও ক্যানসার হতে পারে। এ ছাড়া ইয়াবায় অভ্যস্ততার পর হঠাৎ এর অভাবে সৃষ্টি হয় হতাশা ও আত্মহত্যার প্রবণতা। ধীরে ধীরে এটি অকেজো করে দেয় পুরো শরীর, মন ও মানসিকতার। এমনকি তারা মারামারি ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করতেও পছন্দ করে।

কোনো জিনিস সহজলভ্য হলে তার বিস্তার ঘটে দ্রুত। ইয়াবার ক্ষেত্রেও এমন হয়েছে, তা বলাই বাহুল্য। জানা গেছে, সড়ক ও নৌপথে অন্তত ২৯টি পয়েন্ট দিয়ে ভয়ানক এ মাদক সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ছে। মূলত গোল্ডেন ট্রায়াঙ্গেল এলাকায় মিয়ানমারের বিভিন্ন বিচ্ছিন্নতাবাদী ও সন্ত্রাসী গোষ্ঠী এবং দেশটির নিয়ন্ত্রণাধীন একটি গ্রুপের অধীনে থাকা কারখানাগুলোয় ইয়াবা তৈরির পর রোহিঙ্গাদের কয়েকটি গ্রুপ ও দেশের মাদক সিন্ডিকেটের সদস্যদের মাধ্যমে তা মাদকসেবীদের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে। ইয়াবার সহজলভ্যতা রোধে আইন রক্ষাকারী বাহিনীর ভূমিকা অনস্বীকার্য।
বাংলাদেশ সরকারের ইতোমধ্যে মাদক নিয়ন্ত্রণে ‘জিরো টলারেন্স’ অবস্থানের কথা সর্বজনবিদিত। এটি কার্যকরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে প্রয়োজনে আরও শক্ত অবস্থান নিতে হবে এবং মাদক ব্যবসায়ের সঙ্গে জড়িত প্রভাবশালী বা ক্ষমতাবানদের বিন্দুমাত্র ছাড় না দেওয়ার মানসিকতা নিয়ে অগ্রসর হতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.