রাইফেল নিয়ে সালমানকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল

জনপ্রিয় পাঞ্জাবি র‍্যাপার সিধু মুসে ওয়ালাকে হত্যার রেশ কাটতে না কাটতেই বলিউডে তোলপাড় হয় নতুন ঘটনা নিয়ে। গত রোববার হত্যার হুমকি দেওয়া হয় সালমান খানকে। অভিনেতার বাবা সেলিম খান প্রাতর্ভ্রমণে বের হলে তাঁকে হুমকি দেওয়া চিঠি দেওয়া হয়। ঘটনার গুরুত্ব আরও বেড়ে যায়, যখন জানা যায়, সালমানকে হত্যার হুমকিদাতা আর কেউ নন, কুখ্যাত গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই। জেলে বন্দী বিষ্ণোইয়ের নাম উঠে এসেছে মুসে ওয়ালাকে হত্যার ঘটনাতেও। ঘটনার গুরুত্ব বুঝে মুম্বাই পুলিশ ও পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ দ্রুত শুরু করে তদন্ত। সেই তদন্তে উঠে এসেছে চমকে ওঠার মতো তথ্য।

কেবল হুমকি দেওয়াই নয়, সালমান খানকে হত্যার চেষ্টাও করা হয়েছে। নিজের বাসভবনের সামনে অল্পের জন্য মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে গেছেন তিনি। পুলিশের সূত্রের বরাত দিয়ে খবরটি প্রকাশ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস নাউ। তবে কবে অভিনেতাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়, সেটা জানা যায়নি।

রাইফেল নিয়ে সালমানকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল

হত্যার হুমকি পাওয়ার পর সালমানের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। কিন্ত অভিনেতা সকালে যখন সাইকেল চালাতে যান, তখন সঙ্গে নিরাপত্তারক্ষী নেন না। তাঁর নিরাপত্তায় এই ফাঁক ধরেই হত্যার পরিকল্পনা করা হয়। পুলিশ জানায়, সালমানকে হত্যার উদ্দেশ্য নিয়ে শার্পশুটার তাঁর বাড়ির বাইরে লুকিয়ে ছিলেন। নিজের রাইফেলটি লুকিয়েছিলেন বিশেষভাবে তৈরি একটি হকিস্টিকের খাপে।

সব পরিকল্পনামতোই এগোচ্ছিল, সালমানও সময়মতোই বেরিয়েছিলেন। তবে সাইকেলভ্রমণে নয়, একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে। তাঁকে অনুষ্ঠানে নিতে সালমানের বাড়ি ‘জলসা’র বাইরে হাজির ছিল মুম্বাই পুলিশের গাড়ি। তা দেখেই শেষ পর্যন্ত অভিনেতাকে হত্যার পরিকল্পনা বাতিল করে শার্পশুটার।

এ ঘটনা নিয়ে সালামন বা মুম্বাই পুলিশের আনুষ্ঠানিক বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো অভিনেতাকে হত্যাচেষ্টার পেছনেও লরেন্স বিষ্ণোইয়ের হাত আছে বলে জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *