হরিণাঘাট নৌ পুলিশ কর্তৃক ৩৯ জেলে আটক

আশিক বিন রহিম জাটকা ইলিশ রক্ষায় সরকার ঘোষিত অভয়াশ্রম বাস্তবায়নের চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনায় বিরামহীন তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে
হরিণাঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা। জেলা ট্রাস্কফোর্সের সাথে যৌথভাবে নদীতে ক্লান্তিহীনভাবে অভিযান পরিচালনা করছে তারা। পাশাপাশি হরিণা ফেরীঘাটসহ নদীকে নিরাপদ রাখতেও তাদের নিয়মিত টহল অব্যহত রয়েছে। চাঁদপুর নৌ-পুলিশের পুলিশ সুপারের সার্বিক দিক নির্দেশনায় হরিণাঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্য…. নেতৃত্বে অভয়াশ্রমের ১ মাসে জাল, নৌকা, ইলিশ জব্দসহ ৩৯ জেলে আটক করা হয়েছে।
হরিণাঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি দেয়া তথ্যমতে ১মার্চ থেকে ৬ এপ্রিল পর্যন্ত চলমান অভিযানে ৭৮ লাখ ৭৫ হাজার মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল, জাটকা ধরার ৯টি নৌকা, ৭৫ কেজি ইলিশ, ১হাজার ৪৪ কেজি জেলীযুক্ত চিংড়ী মাছ, ১টি হাইয়েস গাড়ি, ১টি স্পীড বোট জব্দ করা হয়।
আটক করা হয় ৩৯ জেলেকে। এসব অভিযানে ৯টি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে। হরিণাঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্য মিজানুর রহমান জানান, জাটকা রক্ষায় সরকার ঘোষিত অভয়াশ্রম সফল করতে জেলা ট্রাস্কফোর্সের সাথে যৌথভাবে কাজ করে যাচ্ছে নৌ পুলিশ। আমাদের নৌ-পুলিশের এসপি স্যারের নেতৃত্বে আমরা কৌশল অবলম্বন করে ২ টিম নিয়ে দিন এবং রাতে ২৪ঘন্টা নদীতে অভিযান পরিচালনা করে থাকি। সে ক্ষেত্রে আমরা সময় পরিবর্তন করি। যাতে করে জেলেরা আমাদের অভিযান সম্পর্কে পূর্ব থেকে আঁচ করতে না পারে। আমরা স্থানীয় জেলেদের পাশাপাশি বহিরাগত জেলেদের বিষয়টিও মাথায় রাখছি। যাতে করে তারা আমাদের নৌ-সীমানায় ঢুকে জাটকা ইলিশ নিধন করতে না পারে। তিনি আরো জানান, মা ইলিশ রক্ষায় পাশাপাশি নৌ-পুলিশ অন্যান্য দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। নদীতে যাত্রী এবং নৌযানের নিরাপত্তা দেয়া এবং সকল প্রকার অপকর্মরোধে নৌ-পুলিশের নিয়মিত অভিযান এবং তৎপরতা অব্যাহত থাকবে। পাশাপাশি পবিত্র মাহে রমজান এবং ঈদকে কেন্দ্র করে হরিনা ফেরি ঘাটে যাত্রী এবং যানচলাচল ও পারাপার নির্বিঘ্ন রাখতে আমরা সচেষ্ট রয়েছি। যাতে করে এই দুর্দিনে চালক এবং যাত্রীদের নিরাপদে পারাপার হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.