রণবীরকে আড়াই কোটি রুপির উপহার দিলেন তিনি

‘বাস্তু’ আবাসনে সুখের সংসার পেতেছেন আলিয়া আর রণবীর। এই আবাসন তাঁদের প্রেমের নানান রঙিন মুহূর্তের সাক্ষী হয়ে আছে। বলিউডের এই নবদম্পতির বিয়েকে ঘিরে নানান খবর এখনো শোনা যাচ্ছে। এখন উঠে এসেছে বিয়েতে কে কী উপহার পেলেন।

এক দীর্ঘ অপেক্ষার পর আলিয়া ভাট আর রণবীর কাপুর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেন। বিয়ের পর কেক কেটে, শ্যাম্পেন পান করে আর নেচে–গেয়ে তাঁরা বিশেষ দিনটি উদ্‌যাপন করেছেন। আলিয়া আর রণবীরের বিয়ের একগুচ্ছ মিষ্টি ছবি নেট দুনিয়ায় আলোড়ন ফেলেছে। সবাই এই জুটিকে উজাড় করে ভালোবাসা দিচ্ছেন। এক ছবিতে দেখা গেছে, রণবীরের বুকে পরম শান্তিতে মাথা রেখেছেন আলিয়ার বাবা মহেশ ভাট। এই ছবি বুঝিয়ে দিচ্ছে যে মনের মতো জামাই পেয়েছেন তিনি। এদিকে শাশুড়ি নিতু কাপুর বউমা আলিয়ার প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

এই বিয়ের কিছুদিন আগে প্রথম আলোর সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে হবু বউমা আলিয়ার ভূয়সী প্রশংসা করেছিলেন নিতু। রণবীরের বোন ঋধিমার মুখেও শোনা গেছে আলিয়ার প্রশংসা।

 রণবীরকে-আড়াই-কোটি-রুপির-উপহার-দিলেন-তিনি

জানা গেছে, বিয়ের দিন অর্থাৎ ১৪ এপ্রিল রণবীর আর আলিয়ার বাগদান পর্ব হয়েছিল। বাগদান অনুষ্ঠানে আলিয়াকে দেওয়া হয়েছে অত্যন্ত দামি এক হিরের আংটি। এদিকে আলিয়ার মা সোনি রাজদান জামাই রণবীরকে এক অত্যন্ত নামকরা ব্র্যান্ডের ঘড়ি উপহার দিয়েছেন, যা দুষ্প্রাপ্য বলে জানা গেছে।
এই বিশেষ ব্র্যান্ডের ঘড়ির দাম আড়াই কোটি রুপি। রীতি অনুযায়ী বিয়েতে নিমন্ত্রিত সবার হাতে উপহার তুলে দেওয়া হয়। আলিয়ার পছন্দ অনুযায়ী নিমন্ত্রিতদের উপহার দেওয়া হয়েছে।

এই বলিউড নায়িকার পছন্দ করা কাশ্মীরি শাল সবাইকে দেওয়া হয়। শালগুলো অত্যন্ত দামি, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। অতিথিরা এই বিশেষ উপহার পেয়ে দারুণ খুশি বলে জানা গেছে।

বিয়েতে পাঞ্জাবি প্রথা অনুযায়ী কনের ‘চূড়া’ বাঁধার রীতি আছে। কিন্তু আলিয়ার ক্ষেত্রে তা হয়নি। কারণ, এই রীতি অনুযায়ী নববধূ আলিয়াকে কমপক্ষে ৪০ দিন ‘চূড়া’ রাখতে হবে। কিন্তু তাঁর পক্ষে তা সম্ভব নয়। কারণ, এই বলিউড অভিনেত্রী শিগগিরই তাঁর নতুন ছবির শুটিং শুরু করবেন। শোনা যাচ্ছে, বিয়ের পর প্রথম তিনি হলিউড ছবির শুটিং করবেন। এই ছবি দিয়ে আলিয়া হলিউডে পা রাখতে চলেছেন। তাই তাঁর পক্ষে ৪০ দিন চূড়া রাখা কঠিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.